advertisement
আপনি দেখছেন

করোনার কারণে প্রায় চার মাস মাঠের খেলা বন্ধ রাখে ইংল্যান্ড। অবশেষে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট দিয়ে ক্রিকেটে ফেরে তারা। এরপর সেখান থেকে খেলে আসে পাকিস্তানও। টি-টোয়েন্টির পর ওয়ানডে খেলতে বর্তমানে দেশটিতে অবস্থান করছে অস্ট্রেলিয়া। এতসব সিরিজ হলেও মাঠে ঢোকার অনুমতি নেই দর্শকদের।

logo england cricket board

মূলত দীর্ঘদিন খেলা বন্ধ থাকা, ম্যাচের টিকিট বিক্রি না করতে পারা এবং স্পন্সরদের মুখ ফিরিয়ে নেওয়ার কারণে ২০ কোটি পাউন্ড ক্ষতির মুখে পড়তে যাচ্ছে ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। বাংলাদেশি মুদ্রায় এর পরিমাণ প্রায় ২ হাজার ১৯০ কোটি টাকা।

ইতিমধ্যেই ১০ কোটি পাউন্ড ক্ষতি হয়েছে। অচলাবস্থা চলতে থাকলে সামনের বছরও এর ব্যতিক্রম হবে না। এমনটাই জানালেন ইসিবির প্রধান নির্বাহী টম হ্যারিসন।

আর্থিক ক্ষতি কিছুটা পুষিয়ে নিতে কর্মী ছাঁটাইয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসিবি। সেই হিসেবে চাকরি যেতে পারে ৬২ জনের। প্রধান নির্বাহী বলেন, ‘বেশ কিছুদিন যাবৎ ইসিবির বর্তমান অবকাঠামো এবং আর্থিক অবস্থা নিয়ে ভাবছি আমরা। লক্ষ্য ঠিক রেখে তহবিল কমানোর চেষ্টা চলছে। তাই ২০ শতাংশ (৬২ জন) কর্মী ছাঁটাই করা হবে। বোর্ড এদের প্রয়োজন মনে করছে না। এই বিষয়ে আলোচনাও চূড়ান্ত পর্যায়ে আছে।’

england cricket team celebration

শুধু তাই নয়, কোপটা পড়তে পারে খেলোয়াড়দের ওপরেও। হ্যারিসনের ভাষ্য, ২০ শতাংশ তহবিল কমতে পারে পুরুষ দলের। এছাড়াও নারী দল নিয়েও ভাবনায় আছে ইসিবি। 

এমন দুরবস্থার মাঝেও একশ বলের ক্রিকেট টুর্নামেন্ট থেকে মোটা অর্থ আয়ের আশা করছে ইসিবি। এর পরিমাণ হতে পারে ১১ মিলিয়ন পাউন্ড। কিন্তু করোনার কারণে তা এ বছর আয়োজন করা সম্ভব নয়।

sheikh mujib 2020