advertisement
আপনি দেখছেন

সাকিব আল হাসানের ওপর ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) দেওয়া নিষেধাজ্ঞার পরই বিশ্বজুড়ে মহামারি করোনাভাইরাসের প্রকোপ শুরু হয়। এজন্য বাকিদের মতো খুব বেশি সিরিজে অংশ নেয়নি বাংলাদেশ। এটাকে ‘প্লাস পয়েন্ট’ বলছেন জাতীয় দলের অফস্পিনিং অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান মিরাজ।

mehedi hasan miraz injured at sbncsমেহেদি হাসান মিরাজ

ম্যাচ ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব গোপন করার কারণে ২০১৯ সালের অক্টোবরে এক বছরের জন্য সব ধরনের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ হন সাকিব। এখন তিনি মুক্ত। ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ দিয়ে আবারও ব্যাট-বলের আন্তর্জাতিক লড়াইয়ে ফিরবেন মাগুরার এই ক্রিকেটার।

সর্বশেষ পাকিস্তান সফরের পর (গত বছরের মার্চ মাস) কোনো আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেনি বাংলাদেশ। আগামী ২০ জানুয়ারি ওয়ানডে দিয়ে আবারও লাল-সবুজের জার্সি গায়ে চাপাবেন ক্রিকেটাররা। তার আগে মিরাজ জানালেন, ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে খেলতে মুখিয়ে আছেন তারা।

sakib new 2020সাকিব আল হাসান

গণমাধ্যমকে মিরাজ বলেন, ‘অনেকদিন পর আমরা আবারও একসাথে। মাঠে ফিরতে সবাই মুখিয়ে আছে। বিশেষ করে সাকিব ভাইয়ের কথা বলতে হয়। হয়ত উনি এক বছর খেলার বাইরে ছিলেন। তবে করোনাভাইরাসের কারণে এই সময়টাতে আমাদের খেলাও হয়নি। যেটা আমাদের জন্য প্লাস পয়েন্ট।’

সম্ভাবনা থাকার পরও কোয়ারেন্টাইন ইস্যুতে মতের অমিল হওয়ায় স্থগিত হয়ে যায় শ্রীলঙ্কা সিরিজ। খেলোয়াড়দের বেকার বসিয়ে রাখা যাবে না, এমন চিন্তা থেকে দুটি ঘরোয়া টুর্নামেন্ট (বঙ্গবন্ধু প্রেসিডেন্টস কাপ এবং বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ) আয়োজন করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

bcb logo new

২০১৬ সালে ঘরের মাঠে টেস্টে ইংল্যান্ড বধের নায়ক তাই বেশ আশাবাদী ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে ভালো করতে, ‘আমার মনে হয় দল ভালো অবস্থায় আছে। আসন্ন সিরিজের জন্য সবাই কঠোর পরিশ্রম করছে। আশা করছি ভালো একটা সিরিজ হবে।’

sheikh mujib 2020