advertisement
আপনি দেখছেন

সেঞ্চুরিয়ানের সুপার স্পোর্ট পার্কে তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ ওয়ানডেতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ২৮ রানে জিতে সিরিজ নিজেদের করে নিলো পাকিস্তান। এর আগে প্রথম ওয়ানডেতেও জয় পেয়েছিল বাবর আজমের দল।

fakhar zamman pakistanসেঞ্চুরি করার পর অধিনায়কের সঙ্গে ফখর জামানের কোলাকুলি

পাকিস্তানের ছুড়ে দেওয়া বড় লক্ষ্যের জবাবে শুরুটা ভালোই করেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। ওপেনিং জুটিতে ৫৪ রান যোগ করেন এইডেন মার্করাম এবং জানেমান মালান। ব্যক্তিগত ১৮ রানে শাহিন শাহ আফ্রিদির শিকার হন মার্করাম।

ক্রিজে টিকে গিয়েও ইনিংস বড় করতে পারেননি জেজে স্মাটস। এরপর প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেন বাভুমা এবং মালান। তবে  ২৪তম ওভারে এই দুই জনকে আউট করে পাকিস্তানকে খেলায় ফেরায় মোহাম্মদ নেওয়াজ। মালান ৭০ এবং বাভুমা করেন ২০ রান।

খানিক বাদে হেনরিখ ক্লাসেন ফিরে গেলে কোণঠাসা হয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। এরপর ১০৮ রানের জুটি গড়ে ম্যাচ জমিয়ে তোলেন কাইল ভারানে এবং আন্দিলে ফেহলুকাওয়ে। তবে অল্প সময়ের ব্যবধানে এই দুই জন সাজঘরের পথে হাঁটলে আর পেরে উঠেনি স্বাগতিকরা। ৪৯.৩ ওভারে ২৯২ রানেই থেমে যায় তারা। ফেহলুকাওয়ে ৫৪ এবং ভারানে করেন ৬২ রান।

টস হেরে আগে ব্যাট করতে নামে পাকিস্তান। শুরুটা দুর্দান্ত করেন দুই ওপেনার ইমাম উল হক এবং ফখর জামান। ইমাম কেশব মহারাজের শিকার হলে ভাঙে ১১২ রানের জুটি। তার আগে ৭৩ বল থেকে ৩ চারের সাহায্যে ৫৭ করেন এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

pakistan and south africa matchপাকিস্তান ও দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যকার ম্যাচ

এরপর বাবরকে নিয়ে ৯৪ রানের আরও একটি বড় জুটি গড়েন ফখর। সেই সাথে তুলে নেন ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ এবং টানা দ্বিতীয় শতক। কেশবের বলে হেনরিখ ক্লাসেনের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরার আগে ১০৪ বলের মোকাবেলায় ৯ চার এবং ৩ ছয়ের সাহায্যে সর্বোচ্চ ১০১ রানের ইনিংস খেলেন ২০১৭ সালে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত আইসিসি চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ফাইনালে ভারত বধের নায়ক।

ফখরের বিদায়ের পর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে পাকিস্তান। একে একে ফিরে যান মোহাম্মদ রিজওয়ান, সরফরাজ আহমেদ, ফাহিম আশরাফ, মোহাম্মদ নেওয়াজরা। এদিন সেঞ্চুরি মিসের আক্ষেপে পুড়েছেন বাবর। নিজেদের ইনিংসের শেষ বলে আউট হওয়ার আগে ৯৪ রান করেছেন সফরকারী অধিনায়ক।

শেষ দিকে ঝড় তোলেন হাসান আলি। ১১ বল থেকে ১ চার এবং ৪ ছয়ের সাহায্যে ৩২ রানে অপরাজিত থাকেন এই পেসার। সেই সাথে নির্ধারিত ওভার শেষে ৭ উইকেট হারিয়ে ৩২০ রানের সংগ্রহ পায় পাকিস্তান।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

পাকিস্তান: ৩২০/৭ (৫০ ওভার)

ফখর জামান ১০১

দক্ষিণ আফ্রিকা: ২৯২/১০ (৪৯.৩ ওভার)

জানেমান মালান ৭০

ফলাফল: পাকিস্তান ২৮ রানে জয়ী।