advertisement
আপনি দেখছেন

মূল দলের কয়েকজন আছেন ইংল্যান্ড সফরে। বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মারা প্রস্তুতি নিচ্ছেন টেস্ট সিরিজের। আর শিখর ধাওয়ানের নেতৃত্বে অনিয়মিত ভারতীয় দল এসেছে শ্রীলঙ্কা সফরে। এ যাত্রায় প্রথম দুই ম্যাচেই ওয়ানডে সিরিজ জিতে নেয় ভারত। তৃতীয় ম্যাচে তাই আরো তিনজনকে দেওয়া হলো বিশ্রাম। সেটারই মূল্য দিল ভারত।

praveen jayawickrama picked up 3 for 59 sri lanka vs india july 23 2021

শুক্রবার কলম্বোতে মান বাঁচানোর ম্যাচে ডি/এল পদ্ধতিতে ভারতকে তিন উইকেটে হারিয়ে দিয়েছে ধুঁকতে থাকা শ্রীলঙ্কা। আগে ব্যাট করতে নেমে ৪৩.১ ওভারে ২২৫ রানে গুটিয়ে যায় ভারত। জবাব দিতে নেমে আট ওভার ও তিন উইকেট হাতে রেখে জয় তুলে নেয় লঙ্কানরা (২২৭/৭)। এই জয়ে সিরিজ ২-১ ব্যবধানে হেরে শেষ করল স্বাগতিক শিবির।

ভারতের ইনিংসে নেই কোনো হাফসেঞ্চুরি। সেঞ্চুরি তো দূরের কথা। তিন ব্যাটসম্যান ফিরেছেন অর্ধশতকের আভাস দিয়ে। দলের বেশির ভাগ ব্যাটসম্যানই আউট হয়েছেন উইকেটে থিতু হওয়ার পর। দলীয় সর্বোচ্চ ৪৯ রান করেছেন ওপেনার পৃথ্বি শ। তিনে নেমে ৪৬ রান করেছেন সঞ্জু স্যামসন। সূর্যকুমার যাদব ফিরেছেন ৪০ রানে।

এ ছাড়া ধাওয়ান ১৩, মনিশ পান্ডে ১১, হার্দিক পান্ডিয়া ১৯, রাহুল চাহার ১৩ ও নবদীপ সাইনি ১৫ রানে আউট হয়েছেন। তাদের দায়িত্বহীন ব্যাটিংয়ের কারণে লঙ্কানদের হোয়াইটওয়াশ করতে পারেনি ভারত। বরং সিরিজে সান্ত্বনার জয় তুলে নেয়। চলতি বছরে ওয়ানডেতে এটা দ্বিতীয় জয় শ্রীলঙ্কার।

অথচ ভারতের ইনিংসের শুরুটা ছিল দুর্দান্ত। ইঙ্গত দেয় রানপাহাড়ের। ১৬তম ওভারে এক উইকেটে এক শ ছাড়ায় তারা। এরপরই মড়ক লাগে ভারতীয়দের ব্যাটিং অর্ডারে। নিয়মিত বিরতি দিয়ে উইকেট হারায় তারা। তিনটি করে উইকেট নিয়ে ভারতকে ধসিয়ে দিয়েছেন জয়াবিক্রমা ও ধনঞ্জয়া ডি সিলভা। দুটি শিকার দুস্মন্ত চামিরার।

বৃষ্টিভেজা ম্যাচটার দৈর্ঘ্য কমে আসে ৪৭ ওভারে। ভারত টিকতে পারেনি ওই পর্যন্তও। সফরকারীদের ‘অল্প’তে গুটিয়ে দেওয়ার পর শ্রীলঙ্কার জয়ের পথ মসৃণ করে দেন টপ অর্ডারের দুই ব্যাটসম্যান আভিশকা ফার্নান্দো ও ভানকু রাজাপাকশে। দ্বিতীয় উইকেটে এই যুগলের ১০৯ রানের জুটি ভারতকে ছিটকে দেয় ম্যাচ থেকে।

দলের ১৪৪ রানে দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে সাজঘরে ফেরেন রাজপাকসে। ৬৫ রান করেছেন তিনি। ওপেনার ফার্নান্দোর ব্যাট থেকে এসেছে ৭৬ রান। জয়ের পথে হাঁটতে থাকা লঙ্কানরা শেষ দিকে পরপর কয়েকটি উইকেট খুইয়ে বসে। ২৬ রান যোগ করতেই হারায় চার উইকেট। যা ভারতের হারের ব্যবধান কমিয়েছে মাত্র।

চারিথ আসালাঙ্কা ২৪ রানে আউট হন। রমেস মেন্ডিস ১৫ রানে অপরাজিত থাকেন। লঙ্কানদের ইনিংসে তৃতীয় সর্বোচ্চ রান ছিল ‘মিস্টার এক্সট্রা’র। অতিরিক্ত ৩০ রান দিয়েছে সফরকারীরা। তন্মধ্যে ১৫টি ওয়াইড দিয়েছেন ভারতীয় বোলাররা! হার্দিক পান্ডিয়া সাতটি এবং কৃষ্ণাপ্পা গৌতম ছয়টি ওয়াইড দিয়েছেন। লঙ্কানদের পতন হওয়া ছয় উইকেটর তিনটি নিয়েছেন রাহুল চাহার। দুটি শিকার চেতন সাকারিয়ার।

আগামী রোববার থেকে শুরু হবে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ।