advertisement
আপনি পড়ছেন

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা এখন চেনা প্রতিপক্ষ। গত কয়েক বছর ধরে সব ফরম্যাটেই উপমহাদেশের দুই দল মুখোমুখি হচ্ছে। দুই দেশের ক্রিকেটারদের মধ্যে জানাশোনাও বেশ। সোমবার চট্টগ্রামে ১৯৯ রানের ইনিংস খেলে আউট হওয়ার পর অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসকে সান্ত্বনা দিয়েছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। ৯ ঘন্টা ৩৮ মিনিট ব্যাটিং করে ১ রানের জন্য ডাবল সেঞ্চুরি পাননি ম্যাথুস।

mathews told in bangla shakib replied in sinhaleseম্যাথুসের মুখে ‘বাংলা’, সিংহলিজে জবাব দিলেন সাকিবরা

টানা দুই দিনই ম্যাচের বিভিন্ন সময়ে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের সঙ্গে কথা বলতে দেখা গেছে ম্যাথুসকে। দিন শেষে সংবাদ সম্মেলনে জানা যায়, মাঠে ম্যাথুস কথা বলেছেন বাংলা ভাষায়। এতদিন খেলতে খেলতে কমবেশি বাংলা ভাষা রপ্ত করেছেন তিনি। মজার বিষয় হলো, সাকিব-মুশফিকরা নাকি জবাব দিয়েছেন সিংহলিজ ভাষায়।

মাঠে সাকিবদের সঙ্গে কথা বলার বিষয়ে জানতে চাইলে লঙ্কান এ ব্যাটসম্যান বলেন, ‘আমি তাদের অনেককে অনূর্ধ্ব-১৯ পর্যায় থেকে চিনি। আমরা অনেক সময় পার হয়ে এসেছি। আমি তাদের সঙ্গে বাংলায় কথা বলছি এবং তারা আমাকে সিংহলিজে উত্তর দিয়েছে (হাসি)।’ ম্যাথুসের এ উত্তরের পরই সংবাদ সম্মেলন কক্ষে হাসির রোল পড়েছিল।

অবশ্য মুশফিক-তামিমদের বয়সভিত্তিক পর্যায় থেকেই চেনেন ম্যাথুস। ২০০৬ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে লঙ্কানদের অধিনায়ক ছিলেন তিনি, ওই বিশ্বকাপে বাংলাদেশ যুব দলের অধিনায়ক ছিলেন মুশফিক। ১৬ বছর আগের যুব বিশ্বকাপে দিমুথ করুনারত্নে, সাকিব, তামিমরাও ছিলেন।

প্রথম ইনিংসে ১৫৩ ওভার ব্যাটিং করে ৩৯৭ রান তুলেছে শ্রীলঙ্কা। রান রেট ছিল ২.৫৯। ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে এমন ধীর গতিতে রান তোলার কারণ হিসেবে বাংলাদেশের বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের কথাই উল্লেখ করেছেন ম্যাথুস। কৃতিত্ব দিয়েছেন সাকিব-নাঈমদের।

দিন শেষে সংবাদ সম্মেলনে ম্যাথুস বলেন, ‘খুবই ভালো উইকেট। বাংলাদেশ অনেক ভালো বোলিং করেছে। তারা আমাদের কোন সুযোগ দেয়নি, কোনো সহজ রান করতে দেয়নি।’

তিনি আরও বলেন, ‘তাদের সব বোলার ভালো করেছে, আমাদের ওপর অনেক চাপ সৃষ্টি করেছে। আমাদেরকে কষ্ট করে রান নিতে হয়েছে। শেষ পর্যন্ত তারা ফলও পেয়েছে। আমরা মাঝপথে দ্রুত কিছু উইকেট হারিয়ে ফেলেছি এবং পথ থেকে ছিটকে যাই। আমার মনে হয় আমরা ৫০-৬০ রান কম করেছি।’