advertisement
আপনি পড়ছেন

অ্যাথলেটিকো বিলবাওয়ের মতো শক্ত প্রতিপক্ষ। তারপরও দুর্দান্ত ফর্মে থাকা লুইস সুয়ারেজকে বেঞ্চে বসিয়ে রেখেছিলেন বার্সেলোনা কোচ লুইস এনরিকে। সুয়ারেজ থাকছেন না তো কী হয়েছে, মেসি-নেইমাররা আছেন না! কোচকে হতাশ করেননি মেসি-নেইমার। মেসি ফ্রি-কিক থেকে দুর্দান্ত এক গোল করেছেন। নেইমার গোল না পেলেও গোল করিয়েছেন একটি। যাতে লিগ ম্যাচে ঘরের মাঠে বিলবাওকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে বার্সেলোনা।

incredible free kick of messi barcelona won

মেসির ফ্রি-কিক গোলটাতে জাদুর স্পর্শই হয়তো ছিল! ম্যাচের ৪০ মিনিটে কঠিন কোণে ফ্রি-কিক পায় বার্সা। যেখান থেকে ফাঁকা জালেও বল পাঠানো কঠিন কাজ।  কিন্তু মেসি কী জাদুর পরশটাই না বুলিয়ে দিলেন! ডিফেন্ডারদের মাথার উপর দিয়ে একেবারে মাপা একটা শট।

শট নিচ্ছেন ‘ লিওনেল মেসি’ নামের একজন বলেই হয়তো বেশি সাবধান হতে গিয়ে তালগোল পাকিয়ে দিলেন গোলরক্ষক। ফলাফল গোল। তার আগেই অবশ্য এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। সেটার বড় কৃতিত্ব নেইমারের। ১৮ মিনিটে দুর্দান্ত এক প্রচেষ্টায় তিন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে সুবিধাজনক স্থানে থাকা পাকো আলকাসার পায়ে বল তুলে দেন নেইমার। এরপর গোল না করার উপায় ছিল না সুয়ারেজের জায়গায় খেলতে নামা আলকাসার।

বার্সেলোনার তিন নম্বর গোলটা আলেক্স ভিদালের। ৬৭ মিনিটে দারুণ এক গোল করে কাতালান ক্লাবটিকে ৩-০ তে এগিয়ে নেন তরুণ ভিদাল। শেষ পর্যন্ত এই তিন গোলের ব্যবধানে জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছে বার্সেলোনা।

এই জয়ে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের  সাথে পয়েন্টের ব্যবধান কমিয়ে এক-এ নিয়ে এলো বার্সেলোনা। লা লিগার পয়েন্ট টেবিলের দুই নম্বরে থাকা বার্সার পয়েন্ট ৪৫। ৪৬ পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরে রিয়াল মাদ্রিদ। তবে বড় বিষয় হল বার্সেলোনার চেয়ে দুটি ম্যাচ কম খেলেছে রিয়াল মাদ্রিদ। ফলে ওই দুটিতে জিতলে পয়েন্টের ব্যবধানটা গিয়ে ঠেকবে সাতে।