advertisement
আপনি পড়ছেন

তখন শেষ মুহূর্তের খেলা চলছে। রিয়াল মাদ্রিদের ডি-বক্স থেকে বাঁ পায়ে লিওনেল মেসির সেই চিরচেনা বাকানো শট, বলের নাগালই খুজে পেলেন না কেইলর নাফাস, গোল। ব্যাস, ভোঁ দৌড়ে এক কোনে চলে গেলেন বার্সেলোনার প্রাণভোমরা। দৌড়াতে দৌড়াতেই জার্সি খুলে ফেলেছিলেন। দাঁড়িয়ে দুহাত দিয়ে উচিয়ে ধরলেন, দেখালেন এটা ‘১০ নম্বর’ জার্সি, নিচে ‘মেসি’ লেখা! ‘আমি মেসি, একজন জাদুকর’-পরিষ্কার বোঝা গেল এমন কিছুই বোঝাতে চাইলেন আর্জেন্টিনা জাদুকর।

messi el clasico

রেফারি এসে হলুদ কার্ড দেখালেন, কিন্তু সেদিকে ভ্রুক্ষেপই নেই মেসির। না থাকারই কথা। এই হলুদ কার্ডের আগ মুহূর্ত পর্যন্ত যা করে দেখালেন এক কথায় অবিশ্বাস্য। অথবা তার চেয়েও বেশিকিছু। ফ্লেমে বাঁধিয়ে রাখার মতো পারফরম্যান্স। রিয়াল মাদ্রিদের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে রিয়াল সমর্থকদের সামনে রেফারির ওই হলুদ কার্ড দেখানোর মুহূর্তটাও হয়তো বাঁধিয়ে রাখার মতো! এমন উদযাপনের সুযোগ আর কজনই বা পায়।

আজ বার্নাব্যুতে মেসি যেভাবে খেললেন এমন খেলাই বা কজন দেখাতে পেরেছেন অতীতে! দেয়ালে একেবারে পিঠ ঠেকে গিয়েছিল বার্সেলোনার। চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে বিদায় নেওয়ার পর লিগ শিরোপার সম্ভবনাটাই টিকে ছিল। কিন্তু মাঠে সম্প্রতি সময়টা ভালো যাচ্ছিল না বার্সার। অপর দিকে দুর্দান্ত খেলে চলেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। ম্যাচটা আবার হচ্ছে রিয়ালের মাঠে। তাছাড়া কয়েক মৌসুম ধরে ভালো করা নেইমারকেও পায়নি বার্সা।

সব মিলিয়ে প্রতিকূলতায় ভরপুর ছিল বার্সা। কিন্তু কি নিপুন ভাবেই সেটা একপাশে ছিটকে দিলেন মেসি। ‘ক্যারিয়ারের সেরা ম্যাচ’ খেলার পণ করে মাঠে নেমেছিলেন কিনা কে জানে। ম্যাচের প্রথম বাঁশি বাজার পর থেকেই ‘একাই বার্সাকে জিতিয়ে দেওয়ার’ মানসিকতা দেখা গেছে মেসির মধ্যে।

প্রথমার্ধের অর্ধেক সময় না যেতে মার্সেলোর কনুই লেগে মুখ ফেটে রক্ত বেরিয়ে পড়ল। কিন্তু সাইড বেঞ্চে না গিয়ে মুখে টিস্যু চাপিয়ে খেলে গেলেন।

২৮ মিনিটে ব্রাজিলিয়ান কাসেমিরোর গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা।  বার্সেলোনা অবশ্য তেমন সময়ই নেয়নি সমতায় ফিরতে। ৩৩ মিনিটে মেসি দারুণ দক্ষতায় ম্যাচে ফেরান দলকে। যোগ করা সময়ে ওই বাঁধিয়ে রাখার মতো উদযাপনের গোল। যাতে রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে ৩-২ গোলের জয় পেয়েছে বার্সা

অনেকদিন ধরে লা লিগার শীর্ষস্থানটা নিজেদের সম্পত্তি বানিয়ে ফেলা রিয়ালকে হটিয়ে শীর্ষস্থানও দখল করেছে বার্সা। লিগ শিরোপার সম্ভবনাটা ভালোভাবেই টিকে রইল বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের। মেসিময় ‘এল ক্লাসিকো’তে মেসি এমন দুটি কীর্তি গড়েছেন সেগুলোও বাঁধিয়ে রাখার মতো।

আজকের দুই গোলে বার্সেলোনার হয়ে পাঁচশ গোল হয়ে গেল মেসির। বার্সার কোন ফুটবলার অতীতে এই কীর্তি গড়তে পারেননি। মেসির পাঁচশ গেলের ৩৪৩টি লা লিগার ম্যাচে। ৯৪টি চ্যাম্পিয়নস লিগে, ৪৩টি কোপা দেল রেতে, ১২টি ক্লাব বিশ্বকাপে এবং ৩টি ইউরোপিয়ান সুপার কাপে।

এদিকে, ডি স্টেফানোকে ছাড়িয়ে লিগে রিয়ালের বিপক্ষে সর্বোচ্চ গোলদাতাও বনে গিয়েছেন মেসি। লা লিগার ম্যাচে রিয়ালের বিপক্ষে মেসির মোট গোল দাঁড়াল এখন ১৬। ১৪ গোল নিয়ে এতোদিন এই রেকর্ড ছিল ডি স্টেভানোর। আবার এল ক্লাসিকো ইতিহাসেরও সেরা গোলদাতা মেসি। সব ধরনের প্রতিযোগীতায় রিয়ালের বিপক্ষে এ পর্যন্ত মোট ২৩ গোল করেছেন মেসি।