advertisement
আপনি পড়ছেন

‘শেষ পর্যন্ত আমরা ফিলিস্তিনে পৌঁছাতে পেরেছি।’ বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ দলের ম্যানেজার সত্যজিৎ দাস রুপুর কণ্ঠে রাজ্যের স্বস্তি! পৌঁছাতে পেরেই এমন স্বস্তির কারণ হলো, ফিলিস্তিনে পৌঁছার আগে ইসরায়েলের সীমান্তে কম হয়রানির শিকার হতে হয়নি বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ ফুটবল দলকে।

bangladesh team harassment

ফিলিস্তিনে ঢোকার আগে ইসরায়েল সীমান্তে প্রায় সাড়ে তিন ঘন্টা ভোগান্তির শিকার হতে হয়েছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ ফুটবল দলকে।

এএফসি অনূর্ধ্ব-২৩ চ্যাম্পিয়শিপের বাছাইপর্ব খেলতে ফিলিস্তিন গিয়েছে বাংলাদেশ। ওই অঞ্চলের বর্তমান অবস্থা চিন্তা করে অনেকেই অবশ্য এই সফরে না যাওয়ার পক্ষে ছিলেন। কিন্তু এএফসি থেকে সব ধরনের আশ্বাস দেওয়ায় ফিলিস্তিনে যাওয়ার জন্য রাজি হয় বাংলাদেশ।

কিন্তু আশ্বাস পাওয়ার পরও ইসরায়েলের সীমান্তে ভোগান্তিতে পড়তে হলো বাংলাদেশ দলকে। এএফসি বিষয়টি আগে থেকেই জানিয়ে রেখেছিল ইসরায়েলকে। তারপরও সীমান্ত পেরিয়ে যেতে বাংলাদেশকে দলকে ভোগান্তিতে ফেলেছে ইসরায়েল কর্তৃপক্ষ।

বাংলাদেশ দল সরাসরি বিমান যোগে ফিলিস্তিন যেতে পারেনি। দুবাই থেকে বাংলাদেশ প্রথমে যায় জর্ডান। সেখান থেকে ১২ ঘন্টার পাস ভ্রমণে ফিলিস্তিন। ফিলিস্তিনে পৌঁছার আগে ইসরায়েল সীমান্তে সেই ঝামেলা।

দলের ম্যানেজার সত্যজিৎ সাদ রুপু বলেন, ‘ইসরায়েল সীমান্তে আমরা প্রায় সাড়ে তিন ঘন্টা ভোগান্তিতে পড়েছিলাম। এটা আমাদের জন্য দুর্ভাগ্যজনক।’