advertisement
আপনি পড়ছেন

ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তী পেলে বা হালের সেনসেশন লিওনেল মেসি নন, ফুটবলের সর্বকালের সেরা খেলোয়াড় ডিয়েগো ম্যারাডোনা। বিশ্বখ্যাত ফুটবল সাময়িকী ‘ফোর টু ফোর’-এর ভাষ্য এমনই।

maradona is the greatest footballer of the history

ফুটবল ইতিহাসের সেরা ১০ খেলোয়াড়কে বেছে নিয়েছে তারা। সেখানে এক নম্বর জায়গাটা ম্যারাডোনার। ঠিক কী কারণে ম্যারাডোনাকে এক নম্বরে রাখা হয়েছে বা তাকে এক নম্বর বানানোর পিছনে ঠিক কী কী কারণ আছে, তার ব্যাখ্যায় ফোর টু ফোর বলেছে, ‘যে ফুটবল পায়ে ম্যারাডোনাকে দেখেছে, কেবল সে-ই বুঝবে!’

ফোর টু ফোরের সেরা তালিকায় ম্যারাডোনার পরের জায়গাটা লিওনেল মেসির। কোনো বিশ্বকাপ, নিদেনপক্ষে একটা কোপা আমেরিকা না জিতেও পেলে, ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে ছাড়িয়ে গেছেন মেসি। মেসিকে দুই নম্বর জায়গাটা দেয়ার জন্যও তার জেতা শিরোপার কথা ভাবা হয়নি, বরং গুরুত্ব দেয়া হয়েছে তার ফুটবলীয় দক্ষতাকে।

ফুটবলীয় দক্ষতার বিবেচনায় পেলের মতো মেসির নিচে পড়ে গেছেন ইয়োহান ক্রুইফ, ডি স্টেফানো, জিনেদিন জিদান বা রোনাল্ডোও।

ফোর টু ফোর জানাচ্ছে, তারা সেরা ১০ জনকে বেছে নিতে তাদের বিশ্বকাপ জেতা, মহাদেশীয় শিরোপা জেতা; এ রকম ব্যাপারগুলো আমলে নেয়নি। বরং খেলোয়াড় হিসেবে দলের উপর প্রভাব, ফুটবলীয় দক্ষতাই পেয়েছে সর্বাধিক গুরুত্ব।

সব সময় মতো এবারও ফুটবলের সর্বকালের সেরা নিয়ে নিশ্চয় অনেক তর্ক হবে। বিতর্কের ঝড় উঠবে। এই কথা স্বীকার করে নিয়েছে ফোর টু ফোর-ও। বিশ্ব ফুটবল অঙ্গন যে আগামী কয়েকদিন এটা নিয়ে মজে থাকবে, তা মোটামুটি নিশ্চিতই।

ফোর টু ফোর-এর সেরা ১০: ডিয়েগো ম্যারাডোনা, লিওনেল মেসি, পেলে, ইয়োহান ক্রুইফ, ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো, আলফ্রেডো ডি স্টেফানো, ফ্রাঙ্ক বেকেনবাওয়ার, জিনেদিন জিদান, ফেরেঙ্ক পুসকাস, রোনালডো।