advertisement
আপনি পড়ছেন

নেইমার নেই তাতে কি, ডি মারিয়া আছেন তো! কদিন যাবত পিএসজি সমর্থকদের অনেকেরই এমন ‘সান্তনা’। ডি মারিয়ার সাম্প্রতিক পারফরম্যানই অবশ্য এমন ভাবনার কারণ। নেইমার-কিলিয়ান এমবাপ্পে-এডিনসন কাভানিদের ভিড়ে নিয়মিত জায়গা মিলছিল না পিএসজির সেরা একাদশে। তবে যখনই সুযোগ মিলেছে দুহাত ভরেই দিচ্ছেন ডি মারিয়া। সর্বশেষ ১৪ ম্যাচে ১৩ গোল করলেন আর্জেন্টিনা তারকা।

angel di maria vs troyes

নেইমার পায়ের পাতার হাড় ভেঙে ছিটকে যাওয়ার পর নিয়মিত সুযোগ মিলছে সেরা একাদশে। ডি মারিয়া গোলও করছেন নিয়মিত। গত বুধবারও মার্শেইয়ের বিপক্ষে জোড়া গোল করেছিলেন। কাল ফ্রেঞ্চ লিগে তোয়ার বিপক্ষেও গোল পেয়েছেন আর্জেন্টিনা তারকা। ২-০ ব্যবধানে জিতেছে পিএসজি। একটি গোল করেছেন ডি মারিয়া, অন্যটি ক্রিস্টোফার এনকুঙ্কু।

নেইমার তো ছিলেনই না, কাল এডিনসন কাভানি ও কিলিয়ান এমবাপ্পেকেও বিশ্রাম দিয়েছিলেন উনাই এমেরি। সামনে রিয়াল মাদ্রিদের ম্যাচ বলেই হয়তো। তবে পিএসজি কোচের এই সিদ্ধান্তের জন্য একটুও ভুগতে হয়নি ফ্রান্সের বর্তমান সেরা ক্লাবটিকে। মাঠে দুর্বল তোয়াকে কাল রীতিমতো নাচিয়েই ছেড়েছেন ডি মারিয়া, ড্রাক্সলার, রাবিওরা। ৭২ শতাংশ বলের দখল ছিল পিএসজির। ডি মারিয়ারা গোলপোস্টে শট নিয়েছেন ১৯টি। অন্যদিকে তোয়া শট নিতে পেরেছে মাত্র ৫টি।

cavani mbappe neymar psg

তবে এতো কিছুর পরও প্রথমার্ধ গোলশূণ্য শেষ হয়েছে। ডি মারিয়া পিএসজিকে প্রথম গোল এনে দিয়েছেন ৪৭ মিনিটে গিয়ে। ড্রাক্সলারের সঙ্গে ওয়ান-টু খেলে দারুণ এক গোল করেন আর্জেন্টিনা ফরোয়ার্ড। ৭৭ মিনিটে গিয়ে ক্রিস্টোফার এনকুঙ্কুর গোল। দানি আলভেজের ক্রস ধরে ডান পায়ের শটে তোয়া গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন তিনি। শেষ পর্যন্ত ২-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে পিএসজি। এই জয়ে লিগ ওয়ানের পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা পিএসজির পয়েন্ট দাঁড়াল ৭৮।