advertisement
আপনি দেখছেন

রাশিয়া বিশ্বকাপে মূল দলে জায়গা পাওয়া নিয়ে সংশয় ছিল। তবে কোচ দিদিয়ের দেশমের মন জয় করতে সময় লাগেনি। আরেক সমবয়সী বেঞ্জামিন পাভারের সঙ্গে জুটি বেঁধে প্রতিপক্ষের আক্রমণ ঠেকিয়েছেন লুকাস হার্নান্দেজ। একজন ডানে, আরেকজন বাঁয়ে। পাভার-হার্নান্দেজ জুটি হয়ে উঠেছিল ফ্রান্সের রক্ষণভাগের মূল শক্তি।

lucas hernandez celebrates a goal for france

ফরাসিদের বিশ্বজয়ের পেছনে এই দুই ২৩ বছর বয়সী ডিফেন্ডারের ভূমিকা ছিল অগ্রগণ্য। অবশ্য হার্নান্দেজের ক্লাব ক্যারিয়ারে স্বদেশি সতীর্থ বলতে আছেন অ্যান্তনিও গ্রিজম্যান। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ট্রফি নিয়ে দুইজনই অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের ক্লাব ওয়ান্ডা মেট্রোপলিটনোতে সংবর্ধনা নিয়েছেন। এবার গ্রিজম্যানকেও ছেড়ে যেতে হচ্ছে হার্নান্দেজের।

ক্লাব রেকর্ড ৮০ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে পাঁচ বছরের চুক্তিতে অ্যাটলেটিকো ছেড়ে জার্মান বুন্দেসলিগার দল বায়ার্ন মিউনিখে নাম লিখেছেন ফরাসি ডিফেন্ডার হার্নান্দেজ। ১ জুলাই অ্যালিয়েঞ্জ অ্যারেনায় যোগ দেবেন তিনি। চলতি মৌসুমেই বাভারিয়ানদের জার্সিতে দেখা যেতে পারে হার্নান্দেজকে।

কিন্তু একটা ঝামেলা তৈরি হয়েছে। বায়ার্নের মেডিকেল পরীক্ষায় ডান হাঁটুতে লিগামেন্টের ত্রুটি ধরা পড়েছে হার্নান্দেজের। এরপর গত মঙ্গলবার থেকে সার্জারিতে আছেন তিনি। তবে জার্মান জায়ান্টদের সঙ্গে চুক্তি নিয়ে বেশ উৎফুল্ল দেখা গেছে তাকে। আজ হার্নান্দেজ বলেছেন, ‘এটি আমার ফুটবল ক্যারিয়ারের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দিন।’

বাভারিয়ান পরিবারের নতুন সদস্য আরো বলেছেন, ‘বায়ার্ন মিউনিখ ইউরোপ ও বিশ্বে সেরা ক্লাবের একটি। আমি গর্বিত, আগামী মৌসুম থেকে বায়ার্নের হয়ে শিরোপা যুদ্ধে নামতে পারব।’২০১৪ অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদে ‘বি’দল থেকে ডিয়েগো সিমিওনের মূল দলে জায়গা পান হার্নান্দেজ। স্প্যানিশ ক্লাবটির হয়ে ৬৭ ম্যাচে এক গোল করেছেন তিনি।