advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 48 মিনিট আগে

শঙ্কার কালো মেঘ উড়িয়ে মাঠে ফিরেছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে গোলও করেছেন পর্তুগিজ উইঙ্গার। কিন্তু রোনালদোর ফেরার আনন্দ মাটি হয়ে গেছে। এগিয়ে থেকেও যে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারেনি তার দল জুভেন্টাস!

ronaldo strikes 125th ucl goal

বুধবার ঘরের মাঠ আমস্টারডামে তুরিনের বুড়িদের ১-১ গোলে রুখে দিয়েছে আয়াক্স। নিখাদ ফুটবল সমর্থকদের মতে, জুভেন্টাস যে ম্যাচে হারেনি সেটাই বেশি! পুরো ম্যাচেই যে দুর্দান্ত খেলেছে ডাচ ক্লাবটি। তবু পরিচিত দর্শকদের সামনে ড্র করার সান্ত্বনা নিয়ে খুশি থাকতে হলো আয়াক্সকে।

ড্রয়ের ম্যাচ থেকে জুভেন্টাসের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি রোনালদোর অ্যাওয়ে গোলটা। ফিরতি লেগে গোলশূন্য ড্র করলেই চলবে তাদের। সেক্ষেত্রে অ্যাওয়ে গোলের সুবিধায় সেমিফাইনালে উঠে যাবে তুরিনের বুড়িরা। আগামী ১৬ এপ্রিল জুভেন্টাসের মাঠ তুরিন স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় লেগের ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।

ইয়োহান ক্রুইফ এরিনায় ম্যাচটা জমে উঠেছিল শুরু থেকেই। উত্তেজনার রেণু ছড়ানো ম্যাচে গোলমুখ খুলল প্রথমার্ধের শেষ মিনিটে। হোয়াও কানসেলোর ক্রস থেকে দারুণ এক হেডে আয়াক্সের জাল কাঁপান রোনালদো। এনিয়ে টানা দুই ম্যাচে গোল করলেন 'সিআর সেভেন'। সবমিলিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে রোনালদোর এটা রেকর্ড (সর্বোচ্চ) ১২৫তম গোল।

জুভেন্টাসের এগিয়ে যাওয়ার উচ্ছ্বাস বাতাসে মিশে যেতে সময় লাগেনি। দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে ফিরেই সমতায় ফেরে আয়াক্স। স্কোর লাইন ১-১ করেন ব্রাজিলিয়ান ফরওয়ার্ড ডেভিড নেরেস। জুভেন্টাস ডিফেন্ডারদের পায়ের ফাঁক গলিয়ে মাটি কামড়ানো শটে আয়াক্সকে ম্যাচে ফেরান তিনি।

ম্যাচের বাকি সময় জুভেন্টাসের রক্ষণবিভাগের ভালোই পরীক্ষা নিয়েছে আয়াক্সের আক্রমণভাগ। কিন্তু দুর্ভাগ্য তাদের। আপ্রাণ চেষ্টা করেও দ্বিতীয়বার গোলের দেখা পায়নি তারা। তাই ডাচ ক্লাবগুলোর বিপক্ষে অজেয় থাকার গৌরবটা ধরে রাখতে সক্ষম হলো জুভেন্টাস। এ পর্যন্ত নেদারল্যান্ডসের ক্লাবগুলোর বিরুদ্ধে নয়বার খেললেও একটিতেও হারেনি তারা।

sheikh mujib 2020