advertisement
আপনি পড়ছেন

ইউরোপে সবচেয়ে বেশি ফুটবলার রপ্তানি করা দেশ আর্জেন্টিনা। যুগে যুগে ম্যারাডোনা, বাতিস্তুতা, মেসির মতো বিশ্বসেরা খেলোয়াড়দের জন্ম হয়েছে আর্জেন্টিনায়। সেই দেশেই লাল কার্ড দেখানোর অপরাধে রেফারিকে গুলি করে হত্যা করেছেন এক খেলোয়াড়। শুধু তাই নয় ওই 'পাগল' খেলোয়াড়ের গুলিতে আহত হয়েছেন আরেকজন খেলোয়াড়ও।

red card argentina

আর্জেন্তিনার কোরদোবা জেলায় ফুটবলের ইতিহাসের এই লজ্জাজনক ঘটনা ঘটেছে। খেলা চলাকালিন সময়ে সিজার ফ্লোরেস নামের এক রেফারি লাল কার্ড দেখিয়ে মাঠের বাইরে পাঠিয়ে দেন এক ফুটবলারকে। পরে ওই ফুটবলার গুলি করে হত্যা করেন রেফারিকে।

আর্জেন্টাইন গণমাধ্যম জানায়, প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়কে অন্যায়ভাবে ফাউল করায় লাল কার্ড দেখান রেফারি। পরে মাঠ থেকে রিজার্ভ বেঞ্চে ফিরে গিয়ে কিছু সময়ের মধ্যেই রেফারিকে লক্ষ্য করে গুলি চালাতে শুরু করেন সেই ফুটবলার। পর পর তিনবার। প্রথম গুলি করা হয় রেফারির মাথায়। তার পর গলায় এবং সবার শেষে গুলিটি করা হয় বুকে। এ সময় একটি গুলিতে আহত হন অন্য এক ফুটবলার। ওয়াল্টার জারাত নামের ২৫ বছর বয়সী ওই খেলোয়াড়ের গায়ে গুলি লাগলেও তিনি বেঁচে গেছেন। বর্তমানে স্থানীয় একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ।

আর্জেন্টাইন গণমাধ্যম সেই খেলোয়াড়ের নাম প্রকাশ করেনি। পুলিশ জানায়, ফুটবলারের সঙ্গে নিয়ে যাওয়া ব্যাগেই প্যাকেই ছিল বন্দুক। লাল কার্ড দেখে মাঠের বাইরে যাওয়ার পর রিজার্ভ বেঞ্চে ফিরে ব্যাগ থেকে বন্দুক নিয়ে পুণরায় মাঠে গিয়ে রেফারিকে লক্ষ্য করে গুলি চালাতে শুরু করেন। মাঠেই লুটিয়ে পরেন সিজার। পরে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তবে ঘাতক ফুটবলারকে এখনো গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

 

আপনি আরো পড়তে পারেন

নেইমারের সম্পত্তি বাজেয়াপ্তের নির্দেশ

প্রতারণার অভিযোগে আদালতে নেইমার

মেসির দেখা পাচ্ছে পাঁচ বছরের আফগান শিশু