advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 23 মিনিট আগে

ব্যালন ডি’অর ২০১৯ এর জয়ী ফুটবলারের নাম শোনার জন্য প্রতীক্ষার প্রহর গুণছে ফুটবল দুনিয়া। আজ রাতে লিওনেল মেসি কিংবা ভার্জিল ফন ডাইক- একজনের হাতে উঠবে শ্রেষ্ঠত্বের ট্রফি, এটা এক প্রকার নিশ্চিত হয়ে গেছে। ঠিক এমন সময়ে জ্বলে উঠলেন দুজনই।

messi has scored 30 goals against atletico madrid

আগের দিন জোড়া গোল করে লিভারপুলকে জিতিয়েছেন ফন ডাইক। রবিরাতে বার্সেলোনাকে মেসি উপহার দিলেন ‍দুর্দান্ত এক জয়। আর্জেন্টাইন সুপারস্টারের একমাত্র গোলেই কাল রাতে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের মাঠে বার্সা জিতেছে ১-০ ব্যবধানে। স্প্যানিশ লিগের চলতি মৌসুমে এটা কাতালানদের দশম জয়।

মাদ্রিদের মহারণ উত্তেজনার রেণু ছড়িয়েছে শুরু থেকেই। কিন্তু গোল নামক সোনার হরিণের দেখা পাচ্ছিল না কেউ। তাহলে কি দুই গোলরক্ষক ম্যাচের নায়ক বনে যাবেন? বার্সা গোলরক্ষক মার্ক আন্দ্রে টের স্টেগেন ও অ্যাটলেটিকোর শেষ প্রহরী জান ওবলাক রীতিমতো অতিমানব হয়ে উঠলেন ম্যাচে।

গোলরক্ষকদের লড়াইয়ে জয় হয়েছে জার্মান তারকা টের স্টেগেনের। সতীর্থকে জিতিয়ে দিয়েছেন মেসি। নিষ্ফলা লড়াইয়ের শঙ্কা জাগানিয়া ম্যাচটার ব্যবধান তিনিই গড়ে দিলেন। ৮৬ মিনিটে অ্যাটলেটিকোর বিরুদ্ধে ক্যারিয়ারের ৩০তম গোলটি করেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার। তাতেই বাজিমাত।

messi vs atletico madrid players

পেশাদার ক্যারিয়ারে অ্যাটলেটিকের চেয়ে বেশি গোল কেবল সেভিয়ার বিপক্ষেই করেছেন মেসি (৩৭)। কাল দুই দলের মধ্যে নিজের গোল ব্যবধান এক ধাপ কমিয়ে নিলেন তিনি। মেসির গোলটাও হলো দুর্দান্ত। অ্যাটলেটিকোর বিপদসীমায় সতীর্থ রবার্তো ও লুইস সুয়ারেজের সঙ্গে ওয়ান টু খেলে।

তাতেই ধাক্কা খায় স্বাগতিক শিবির। কাতালানদের বিরুদ্ধে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের জয়খরার সময়টা আরো দীর্ঘায়িত হলো। লা লিগায় এনিয়ে ১৯ ম্যাচে বার্সার বিরুদ্ধে জয়হীন থাকল তারা। জয়বন্ধ্যত্ব হয়তো ঘুচতে পারতো অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। ম্যাচের গল্পটাও অন্যরকম হতে পারতো।

সেটা হয়নি ঘরের মাঠের গোলপোস্ট তাদের কাছ থেকে মুখ ফিরিয়ে নিলে। ম্যাচের শুরুর দিকে যে মারিও এরমোসোর শট জুনিয়র ফিরপোর পায়ে লেগে পোস্টে প্রতিহত হয়! প্রথমার্ধের শেষ দিকে আবার বার্সা গোলবঞ্চিত হয়েছে জেরার্ড পিকের হেড স্বাগতিকদের পোস্টে বাধা পেলে।

ওয়ান্ডা মেট্রোপলিটানোতে এই জয়ে রিয়াল মাদ্রিদকে সরিয়ে আবারো পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে ফিরলেন মেসিরা। ১৪ ম্যাচে ৩১ পয়েন্ট তাদের। বার্সার সমান পয়েন্ট থাকা সত্ত্বেও গোলগড়ে পিছিয়ে দুইয়ে নেমে গেছে রিয়াল মাদ্রিদ। ১৫ ম্যাচে ২৫ পয়েন্ট নিয়ে ছয়ে নেমেছে অ্যাটলেটিকো। ৩০ পয়েন্ট থাকা সেভিয়া তিনে।

sheikh mujib 2020