advertisement
আপনি দেখছেন

ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানের শেষবারের দেখায় নঁতের মাঠে ৩-২ গোলে হেরেছিল প্যারিস সেন্ট জার্মেই (পিএসজি)। সেই হারের মধুর একটা প্রতিশোধই নিল ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা। বুধবার রাতে প্যারিসে ডেকে এনে নঁতেকে ২-০ গোলে হারিয়ে দিল টমাস টুখেলের দল।

neymar celebrates with mbappe

দুর্দান্ত এই জয়ের জন্য পিএসজি কোচ পিঠ চাপড়ে দিয়েছেন দুই শিষ্য কিলিয়ান এমবাপ্পে ও নেইমার জুনিয়রকে। দলের দুই গোলের দুটিই যে করেছেন এই মানিকজোড়। লিগের চলতি আসরে এটা পিএসজির দ্বাদশ জয়। ১৫ ম্যাচে ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে যথারীতি শীর্ষস্থান আরো মজবুত করল তারা।

দুইয়ে থাকা অলিম্পিক মার্শেই পিএসজির চেয়ে এক ম্যাচ বেশি খেলেছে। তাদের সঙ্গে চ্যাম্পিয়নদের দূরত্ব পাঁচ পয়েন্টের। মার্শেইর সমান ম্যাচে ২৬ পয়েন্ট নিয়ে তিনে থাকল বোর্দে। এক পয়েন্ট পিছিয়ে লিগ টেবিলের চার ও পাঁচে আছে যথাক্রমে লিলঁ ও সেতঁ অ্যাতঁ।

ঘরের মাঠ পার্ক ডু প্রিন্সেসে প্রথমার্ধে অবশ্য গোলখরায় ভুগতে হয়েছে পিএসজিকে। দ্বিতীয়ার্ধে স্বাগতিকদের আক্রমণভাগকে আর আটকাতে পারেনি নঁতে। ৫২ মিনিটে দুর্দান্ত এক ব্যাকহিলে গোলমুখ খেলেন এমবাপ্পে। ফরাসি তারকার গোলে পিএসজি ন্যূনতম ব্যবধানে জয়ের অপেক্ষাতেই ছিল।

সেটা অবশ্য হতে দেননি নেইমার। চোট কাটিয়ে মাঠে ফিরে করেন প্রথম গোল। নির্ধারিত সময়ের মিনিট পাঁচেক আগে পেনাল্টি থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার। নেইমার প্রথমবার জালের দেখা পেয়েছিলেন ম্যাচের ৪১ মিনিটে। কিন্তু ভিএআরের বলি হয় তার গোলটা। রেফারি বাজান ফাউল প্লের বাঁশি। ভিএআরে দেখা যায় আক্রমণের আগ মুহূর্তে জুলিয়ান ড্র্যাক্সলার নঁতের ডিফেন্ডারকে ফাউল করেন।

পিএসজির দুই গোলের নেপথ্য নায়ক অবশ্য দুই আর্জেন্টাইন তারকা। ৮৫ মিনিটে নেইমার যে গোলটার করেছেন সেটার পেনাল্টি পাইয়ে দিয়েছেন বদলি স্ট্রাইকার মাউরো ইকার্দি। আর এমবাপ্পেকে দিয়ে ম্যাচের প্রথম গোলটি করিয়েছেন অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়া।