advertisement
আপনি দেখছেন

ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানের আগের ম্যাচে প্যারিস সেন্ট জার্মেইকে (পিএসজি) জিতিয়েছিলেন কিলিয়ান এমবাপ্পে ও নেইমার। শনিবার রাতে ফের ফরাসি চ্যাম্পিয়নদের ত্রাণকর্তারূপে হাজির হলেন সেই দুজনই। তাদের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে পিছিয়ে থেকেও মঁপেয়েরকে ৩-১ গোলে হারিয়েছে পিএসজি।

neymar kylian mbappe rescue psg

ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানের চলতি আসরে এটা টমাস টুখেলের দলের ১৩তম জয়। এই জয়ে শীর্ষস্থান সবার ধরাছোঁয়ার বাইরে নিয়ে গেল পিএসজি। ১৬ ম্যাচে ৩৯ পয়েন্ট তাদের। দুইয়ে থাকা অলিম্পিক মার্শেইর সঙ্গে পিএসজির দূরত্বটা আট পয়েন্টের। এক ম্যাচ বেশি খেলা লিলের পয়েন্ট ২৮। তাদের অবস্থান তালিকার তৃতীয়তে।

মঁপেয়ের মাঠে ম্যাচের শুরু থেকেই ছন্নছাড়া ফুটবল খেলতে থাকে পিএসজি। একটি শটও লক্ষ্যে রাখতে পারছিল না তারা। আক্রমণভাগে ফিনিশিং দুর্বলতা নিয়ে যখন হাহাকার হচ্ছিল তখনই রক্ষণ বিভাগ করে ফেলল অপ্রত্যাশিত ভুল। সেই ভুলের মাসুল দিতে হলো লিয়ান্দ্রো পেরেদেসের আত্মঘাতী গোল হজম করে (১-০)।

ম্যাচ তখন বিরতি ছুঁই ছুঁই। লিড নিয়ে বিরতিতে যায় মঁপেয়ের। দ্বিতীয়ার্ধে বদলে যায় পিএসজির পারফরম্যান্স। চেনারূপে ফিরতে শুরু করে লিগ ওয়ান চ্যাম্পিয়নরা। গোছানো ফুটবল খেলতে থাকে তারা। যদিও সমতায় ফেরার জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছে ১০ জনের মঁপেয়ের জন্য। ৭২ মিনিটে সরাসরি লাল কার্ড দেখেন পেদ্রো মেন্ডিস।

নেইমারকে বাজে ট্যাকল করে মাঠ ছাড়েন মঁপেয়ের তারকা। পাল্টে যায় ম্যাচের চিত্র। একজন কম প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে পূর্ণ ফায়দা তুলে নেয় পিএসজি। দুই মিনিটের ব্যবধানে সমতায় ফেরে তারা। নেইমারের দুর্দান্ত এক ঘূর্ণি ফ্রি-কিক চূর্ণ করে স্বাগতিকদের বাধার প্রাচীর (১-১)। এই গোলের রেশ কাটতে না কাটতেই এমবাপ্পের গোলে লিড। ফরাসি ফরওয়ার্ডের গোলের উৎস ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার।

৮১ মিনিটে পিএসজির গোল উৎসবে যোগ দেন ধারে খেলতে আসা আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার মাউরো ইকার্দি। লিগের এই আসরে এটা তার তৃতীয় গোল। এমবাপ্পে পেয়েছেন সপ্তম গোলের দেখা। আর দূরপাল্লার ফ্রি-কিক শট থেকে নেইমার যে জালের ঠিকানা খুঁজে নিয়েছেন এটা তার ষষ্ঠ গোল। তারকাদের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে পিএসজিও পেল টানা চতুর্থ জয়।