advertisement
আপনি দেখছেন

মহারণের ভাগ্য নির্ধারণ হয়ে গেছে প্রথমার্ধেই। তিনবার আর্সেনালের জাল কাঁপিয়ে উৎসবে মেতে ওঠে ম্যানচেস্টার সিটি। বিরতির পর আর জালের ঠিকানা খুঁজে নিতে পারেনি সিটিজেনরা। অলৌকিক কোনো প্রত্যাবর্তন করতে পারেনি আর্সেনালও। ঘরের মাঠ এমিরেটস স্টেডিয়ামে উত্তর লন্ডনের ক্লাবটি হারল ৩-০ গোলে।

de bruyne celebrates a goal

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ১৭তম ম্যাচে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের এটা একাদশতম জয়। দাপুটে এই জয়ের নায়ক কেভিন ডি ব্রুয়েন। এদিন সিটির তিন গোলের দুটিই করেছেন বেলজিয়ান মিডফিল্ডার। ম্যানচেস্টার জায়ান্টদের হয়ে অন্য গোলটা করেছেন ইংলিশ ফরওয়ার্ড রহিম স্টার্লিং।

এই জয়ে শীর্ষ দুই দলের সঙ্গে পয়েন্ট ব্যবধান আরেকটু কমিয়ে এনেছে সিটি। তাদের পয়েন্ট ৩৫। ৩৯ পয়েন্ট নিয়ে লেস্টার সিটি দুইয়ে এবং ৪৯ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে লিভারপুল। সিটির নিচে থাকা চেলসির পয়েন্ট ২৯। ২৬ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার পাঁচে উঠে এসেছে হোসে মরিনহোর টটেনহাম হটস্পার।

লিগে আগের ম্যাচে ম্যানচেস্টার ডার্বিতে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর কাছে ২-১ গোলে হেরেছিল সিটি। ধঁকলটা উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে কাটিয়ে ওঠে পেপ গার্দিওলার দল। কাল প্রিমিয়ার লিগেও চেনা ছন্দে ফিরল ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা। জয়ে ফেরার আভাসটা বিরতির আগেই দিয়ে ফেলে সিটি।

ম্যাচটা ঠিকঠাক শুরুই হয়নি। আরাম করে গ্যালারিতে বসতে পারেননি দর্শকরা। এরই মধ্যে রেফারির গোলের বাঁশি। দুই মিনটেই আর্সেনালের রক্ষণে চিড় ধরা ডি ব্রুইনে। ৪০ মিনিটে বেলজিয়ান সেনসেশন করেন নিজের দ্বিতীয় গোল। তার দুই গোলের মাঝে ১৫ মিনিটে গোল করে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন র্স্টার্লিং।

প্রথমার্ধের শেষ বাঁশির আগেই হ্যাটট্রিক পেতে পারবেন ডি ব্রুইনে। আর্সেনালের গোলমুখে দূরপাল্লার জোরাল শট নেন সিটির বেলজিয়ান তারকা। কিন্তু তার শট ঠেকিয়ে দেন স্বাগতিক গোলরক্ষক বার্নড লেনো। তার গ্লাভস ছুঁয়ে বল গিয়ে আঘাত হানে পোস্টে। দ্বিতীয়ার্ধে  দুটি সুযোগ পেলেও তৃতীয়বার জালের সন্ধান পাননি ডি ব্রুইনে।