advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 57 মিনিট আগে

আর্সেনালের ধারাবাহিক ব্যর্থতার দায়ে চাকরি হারিয়েছেন উনাই এমেরি। তার শূন্যস্থানে সাময়িকভাবে দাঁড় করানো হয়েছিল ক্লাবের সাবেক মিডফিল্ডার ফ্রেডি ইয়ুনবারিকে। কিন্তু ভারপ্রাপ্ত কোচের অধীনেও ধুঁকছে আর্সেনাল।

arteta arsenal new head coach

অগত্যা নতুন প্রধান কোচ নিয়োগ দিতেই হলো উত্তর লন্ডনের ক্লাবটিকে। আজ মিকেল আর্তেতাকে নতুন কোচ হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে আর্সেনাল। তার সঙ্গে ক্লাবের চুক্তিটা দুই বছরের। অবশ্য আর্তেতার হাতে যে আর্সেনালের দায়িত্ব তুলে নেওয়া হচ্ছে এমন গুঞ্জন কদিন ধরেই চলছিল ব্রিটিশ মিডিয়ায়।

আর্তেতাকে নিয়োগ দেওয়ার প্রসঙ্গ নিয়ে বেশ চর্চা চলছিল যুক্তরাজ্যে। কারণ পূর্ণ কোচ হিসেবে কখনোই কোনো দলের দায়িত্ব পালন করেননি তিনি। সবশেষ গেল দুই বছর ধরে ম্যানচেস্টার সিটিতে পেপ গার্দিওলার সহকারী হিসেবে কাজ করে আসছিলেন আর্তেতা।

এমন অনভিজ্ঞ একজনের হাতে আর্সেনালের মতো ক্লাবের দায়িত্ব তুলে দেওয়া কতটা বাস্তবসম্মত এনিয়ে প্রশ্নও ওঠে। কিন্তু সব জেনে শুনেই ঝুঁকির পথটা বেছে নিল আর্সেনাল। গানারদের কয়েক বছরের দুর্দশা কাটাতে সাবেক মিডফিল্ডারের ওপর আস্থা রাখলেন ক্লাবের নীতি নির্ধারকরা। আর্সেনালের জার্সিতে পাঁচ মৌসুমে (২০১১-১৬) ১৪৯টি ম্যাচ খেলেন আর্তেতা।

গত বছর দীর্ঘ দিনের কিংবদন্তি কোচ আর্সেন ওয়েঙ্গারকে অব্যাহতি দেয় আর্সেনাল। পরে বিদায়ী বছরের নভেম্বরে পিএসজির প্রাক্তন কোচ এমেরিকে নিয়োগ দেয় উত্তর লন্ডনের ক্লাবটি। তার অধীনে বিদায়ী মৌসুমের বাকি সময় খুব একটা খারাপ করেনি আর্সেনাল। ইংলিশ লিগ শেষ করেছে পাঁচে থেকে।

এই মৌসুমে আরো ভালো করার লক্ষ্য ছিল আর্সেনালের। তা পূরণ হয়নি। বরং ক্রমাগত বাজে সময়ের মধ্য দিয়ে দিন কাটাচ্ছিল গানাররা। অবশেষে ভেঙে গেছে আর্সেনাল কর্তাদের ধৈর্যের বাধ। স্প্যানিশ কোচকে সরিয়ে দেন তারা। এমেরির সহকারীর হাতে কিছুদিনের জন্য দায়িত্ব দেওয়া হলে তিনিও ব্যর্থ হন এমেরির মতোই।

sheikh mujib 2020