advertisement
আপনি দেখছেন

ঠিক যেন আগের ম্যাচের প্রতিচ্ছবি। দুর্দান্ত খেলেও এল ক্লাসিকো মহারণে বার্সেলোনার বিরুদ্ধে গোল করতে পারল না রিয়াল মাদ্রিদ। রোববার স্প্যানিশ লা লিগায় টানা দ্বিতীয় ম্যাচে একই দুর্ভাগ্য বরণ করতে হলো জিনেদিন জিদানের দলকে। বার্সেলোনার পর এবার রিয়ালকে গোলশূন্য ব্যবধানে রুখে দিল অ্যাথলেটিক বিলবাও।

real madrid were frustrated by athletic bilbao

ঘরোয়া লিগে চলতি মৌসুমে এনিয়ে টানা তৃতীয় ম্যাচে ড্র করল রিয়াল মাদ্রিদ। ১৩ বছর পর টানা তিনটি ড্র করল তারা। সবমিলিয়ে এই মৌসুমে সপ্তমবার প্রতিপক্ষের সঙ্গে পয়েন্ট ভাগাভাগি হলো তাদের। এই হোঁচটের পরও ১৮ ম্যাচে ৩৭ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের দুইয়ে থাকল লস ব্ল্যাঙ্কোসরা। সমান ম্যাচে দুই পয়েন্ট বেশি নিয়ে যথারীতি শীর্ষে থাকল বার্সেলোনা।

আগের ম্যাচের মতো কালও আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলেছে রিয়াল। কিন্তু ভাগ্য সহায় না থাকায় এদিন হতাশা নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে তাদের। ঘরের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে রিয়াল প্রথমবার হতাশ হয়েছে কুড়ি মিনিটে। বিলবাও ডিফেন্ডারদের ঘোল খাইয়ে টনি ক্রুস যে শটটা নিয়েছিলেন তা ফিরে আসে ক্রসবারে লেগে।

১৩ মিনিট পর করিম বেনজেমাকে নিশ্চিত গোলবঞ্চিত করেন অতিথি এক ডিফেন্ডার। গোললাইন থেকে বল ফিরিয়ে দিলে নিরাশ হন ফরাসি স্ট্রাইকার। শুধু এবারই নয়, ম্যাচে গোলের সাতটি সুযোগ হাতছাড়া করেছেন বেনজেমা। দুর্ভাগ্য রিয়ালের পিছু ছাড়েনি দ্বিতীয়ার্ধেও। ৬০ মিনিটে ন্যাচোর হেড প্রতিহত হয় ক্রসবারে লেগে। ৮৬ মিনিটেও একই দৃশ্য। এবার লুকা জোভিচের নেওয়া শট ফিরে আসে পোস্টে লেগে।

অবস্থা এমন হয়েছিল যে, ঘরের মাঠের গোলপোস্টই রিয়াল মাদ্রিদের আরেক প্রতিপক্ষ হয়ে দাঁড়িয়ে গিয়েছিল। না হলে অন্তত একটি গোল হলেও পেতে পারতো তারা। দুর্ভাগ্য ও বিলবাও দুই প্রতিপক্ষের সঙ্গে শেষ অবধি পেরে উঠল না মাদ্রিদ জায়ান্টরা। ম্যাচ শেষে এই হতাশা লুকিয়ে রাখেননি রিয়ালের প্রধান কোচ জিদান।

রিয়ালের হতাশার রাতে প্রত্যাশিত জয় তুলে নিয়েছে তাদের নগর প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। কাল রাতে অন্য ম্যাচে রিয়াল বেটিসের মাঠে ১-০ গোলে জিতেছে ডিয়েগো সিমনের দল। এই জয়ে ৩২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের চতুর্থ স্থান ধরে রাখল অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। দুই পয়েন্ট এগিয়ে তিনে আছে সেভিয়া।