advertisement
আপনি দেখছেন

নতুন বছরের শুরুতে ৩৫ বছর পূর্ণ করলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। পর্তুগিজ যুবরাজের চেয়ে প্রায় তিন বছরের ছোট চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী লিওনেল মেসি। যদিও একই সঙ্গে দুজনের অবসর নিয়ে কমবেশি আলোচনা হচ্ছে। এই তো কদিন আগেও বার্সেলোনার বিশ্বজয়ী স্প্যানিশ কিংবদন্তি কার্লোস পুয়োল বললেন মেসি ৩৮ বছর পর্যন্ত খেলতে পারে।

carles puyollionel messi barcelona 2019 20

কিন্তু গণমাধ্যম আরো দুই বছর বাড়িয়ে প্রশ্ন করেছে তাকে? ৪০ বছর পর্যন্ত খেলা সম্ভব? পারবেন আপনি? স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক মুন্ডো দিপোর্তিভোকে মেসির উত্তর, ‘দেখা যাক, দেখি কী হয়।’ মেসি ওই পর্যন্ত যেতে পারবেন কিনা সেটা বলে দেবে সময়। কার্যত নিজেকে আগের চেয়ে অনেক ফিট দাবি করলেন তিনি।

বৃহস্পতিবার সাক্ষাৎকারে মেসি বলেছেন, ‘সত্যি বলতে এখনই এনিয়ে বলা কঠিন। জানি না তখন কী হবে। কিন্তু এখন আমার খুব লাগছে। আগের বছরগুলোর চেয়ে ভালো অনুভব হচ্ছে। আমি হয়তো অনেক গোলের সুযোগ তৈরি করছি না, কিন্তু শারীরিকভাবে আমি পর্যাপ্ত ফিট আছি।’

মেসির দাবিটা অমূলক নয়। কেননা বলা হয়ে থাকে, ফিটনেস যে কোনো ক্রীড়াবিদের সাফল্যের নেপথ্য কারণ। মেসির ক্ষেত্রে তাই প্রযোজ্য। ৩২ বছর বয়সেও আগের মতো ক্ষুরধার বার্সেলোনা অধিনায়ক। এই মৌসুমে লা লিগায় ইতোমধ্যে ১৯ ম্যাচে ১৪ গোল করেছেন তিনি। যদিও শেষ চার ম্যাচ ধরে গোল পাচ্ছেন না মেসি।

সেটা অবশ্য তিনি অ্যাসিস্টের বন্যা বইয়ে পুষিয়ে দিচ্ছেন। বার্সেলোনার গেল তিন ম্যাচে সতীর্থদের দিয়ে ছয়টি গোল করিয়েছেন ছয়বারের বর্ষসেরা ফুটবলার। কিন্তু ভক্তদের চাওয়া- পরোক্ষ নয়, গোলে প্রত্যক্ষ অবদান রাখুক প্রিয় তারকা মেসি।

sheikh mujib 2020