advertisement
আপনি দেখছেন

কথায় আছে ঢেঁকি স্বর্গে গেলেও ধান ভানে। সেই পুরাতন বাংলা প্রবাদ সত্যি করলেন জাল পাসপোর্ট নিয়ে প্যারাগুয়েতে প্রবেশের অপরাধে জেলে থাকা তারকা ফুটবলার রোনালদিনহো। জেলের ভেতর অংশ নিয়েছেন পাঁচজনের ফুটসালে। আর ফাইনালে দলকে জিতিয়ে পেয়েছেন আকর্ষণীয় পুরস্কার। ফাইনালে এক রোনালদিনহোই করেছেন ৫ গোল ও ৬ অ্যাসিস্ট।

2ronaldinho

খেলোয়াড়ি জীবনে ২০০২ সালে ব্রাজিলের হয়ে বিশ্বকাপ জেতা এই ফুটবলার জাল পাসপোর্ট নিয়ে প্যারাগুয়েতে প্রবেশ করায় গ্রেপ্তার করা হয় তাকে। সাথে রয়েছেন তার ভাই রবার্তোও। গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, দেশটিতে অবস্থানের সময় রোনালদিনহোর হোটেল রুমে তল্লাশি চালিয়ে জাল পাসপোর্ট ও অন্যান্য ভুয়া কাগজপত্র পাওয়া যায়। প্যারাগুয়ের অভিবাসন ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ও ভুয়া কাগজপত্র পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে। এরপরে তাকে আদালতে তোলা হয়। আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাকে জেলে পাঠানের আদেশ দেন।

ব্রাজিলিয়ান এই সুপারস্টারের কাছে যে পাসপোর্ট পাওয়া গেছে তাতে তার নাম, জন্মস্থান এবং জন্মতারিখ- সবই ঠিকই আছে। কেবল নাগরিকত্বের জায়গায় ব্রাজিলের বদলে প্যারাগুয়ে বসানো ছিল।

এর আগে অনুমতি ছাড়া একটি চিনির কল স্থাপনের কারণে তাকে ২৩ লাখ ডলার জরিমানা করা হয়েছিল এবং সাথে তার পাসপোর্ট জব্দ করা হয়। এ কারণেই এমন লুকোচুরির আশ্রয় নিতে হয় এই ব্রাজিলিয়ান গ্রেটকে। নিজের পরিচয় লুকিয়ে প্যারাগুয়েতে গিয়েছিলেন একটি দাতব্য প্রতিষ্ঠানের শুভেচ্ছা দূত হিসেবে।

এই তারকা ফুটবলার যে কারাগারে রয়েছেন সেখানে প্রতি ছয় মাস পরপর একটি ফুটসাল প্রতিযোগিতা হয়। এবারের টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে রোনালদিনহোর দল। ফাইনালে প্রতিপক্ষকে ১১-২ গোলে উড়িয়ে দিয়েছেন তাঁরা।

sheikh mujib 2020