advertisement
আপনি পড়ছেন

চলতি মৌসুমের শুরু থেকে অসাধারণ ফুটবল উপহার দেয়া বার্সার সেমিতে ওঠা হলো না। মেসিদের হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমি-ফাইনাল নিশ্চিত করেছে আতলেতিকো মাদ্রিদ। সেমিতে ওঠা অন্য দুটি দল হলো রিয়াল মাদ্রিদ ও ম্যানচেস্টার সিটি। শুক্রবার সেমি ফাইনালের ড্র অনুষ্ঠিত হবে।

barcelona atletico

এর আগে নিজেদের মাঠ কাম্প নউতে বার্সেলোনা জিতেছিল ২-১ গোলে। ফিরতি লেগে আতলেতিকোর ঘরের মাঠে ২-০ ব্যবধানে জিতলো দিয়েগো সিমেওনের দল। ভিসেন্তে কালদেরনে কানায় কানায় পরিপূর্ণ স্টেডিয়ামে দর্শকদের হতাশ করেনি অাতলেতিকো মাদ্রিদ।

খেলার প্রথমার্ধের বলের দখল ৭৩% ছিল বার্সেলোনার। কিন্তু আক্রমণের পরা আক্রমণ চালায় আতলেতিকো। খেলার ৩৩ মিনিটে সুৃবিধাজনক জায়গা থেকে ফ্রি-কিক নেন মেসি। কিন্তু বল চলে যায় ক্রসবারের উপর দিয়ে। এর ৩ মিনিট পরই সাউল নিগেসের দারুণ ক্রসে দুর্দান্ত গোল করেন গ্রিজমান। ৪১তম মিনিটে শট নিয়েছিলেন নেইমার, কিন্তু গোলরক্ষক ওবলাক দক্ষতার সঙ্গে আটকিয়ে দেন। প্রথমার্ধে বড় কোন সুযোগ তৈরি করতে পারেনি বার্সেলোনা।

দ্বিতীয়ার্ধে ৬১ মিনিটে পাল্টা আক্রমণ করেন গ্রিজমান। ৫ মিনিট পর সুয়ারেসের জোরালো শট ঠেকিয়ে দেন ওবলাক। ম্যাচের শেষ দিকে পেনাল্টি থেকে আবার গোল করেন গ্রিজমান। গ্রিজম্যানের উদ্দেশে বাড়ানো বলে ডি-বক্সে বলে হাত লাগিয়ে দেন বার্সেলোনা অধিনায়ক ইনিয়েস্তা। গ্রিজমানের এটি এ মৌসুমের ২৯তম গোল।

তবে অতিরিক্ত সময়ে ডি-বক্সের ভেতর বলে হাত ছোঁয়ান আতেলেতিকো মাদ্রিদের অধিনায়ক গাবিও। কিন্তু পেনাল্টি দেননি রেফারি। বক্সের ঠিক বাইরে থেকে ফ্রি-কিক দেন। মেসির শটে ক্রসবারের সামান্য উপর দিয়ে চলে যায়। টানা ৫ ম্যাচ গোলশূন্য থাকলেন মেসি আর দ্বিতীয়বারের মতো বার্সার ‘ট্রেবল’ জয়ের স্বপ্নও ভঙ্গ হলো।

বার্সার মুখোমুখি হওয়া ১৭ ম্যাচের মধ্যে আতলেতিকো জয় পেয়েছে মাত্র ২টিতে। আর এই দুটিই কোয়ার্টার ফাইনাল। নয় মৌসুমের মধ্যে আতলেতিকো বাঁধার কারণে ২ বার সেমিতে যেতে পারলো না বার্সেলোনা।

 

আপনি আরো পড়তে পারেন

অদম্য রোনালদো, দুর্দান্ত রিয়াল মাদ্রিদ

র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে মেসির আর্জেন্টিনা

রিয়ালের এই হার বড় লজ্জার