advertisement
আপনি দেখছেন

লিভারপুলকে বদলে দেওয়ার নায়কদের একজন ভার্জিল ফন ডাইক। ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে অ্যানফিল্ডে তার আগমনের পর থেকেই শুরু হয় অল রেডদের পালা-বদল। যার অংশ হিসেবে বহু বছর পর ইংলিশ ক্লাবটি জিতেছে ইউরোপিয়ান ফুটবলের সবচেয়ে বড় মুকুট চ্যাম্পিয়নস লিগের রুপালি ট্রফি।

liverpool star virgil van dijkফন ডাইক

এই মৌসুমে তো দীর্ঘ তিন দশকের অপেক্ষা ঘোচানোর অপেক্ষায় আছে লিভারপুল। এসবকিছু সম্ভব হয়েছে ফন ডাইকের দুর্দান্ত নৈপুণ্যের সুবাদে। সামনের বছরগুলোতে মার্সিসাইড ক্লাবটিকে আরো সাফল্য উপহার দিতে চান ডাচ ডিফেন্ডার। ফন ডাইক হতে চান ক্লাবের একজন কিংবদন্তি। এরপরই যেতে চান অবসরে।

ক্লাবের কিংবদন্তি হিসেবেই অ্যানফিল্ড ছাড়ার স্বপ্ন দেখছেন ফন ডাইক। সোমবার ইংলিশ প্রচারমাধ্যম স্পোর্টকে লিভারপুল ডিফেন্ডার বলেছেন, ‘লিভারপুলের হয়ে আমি অনেককিছু জিততে চাই। অবসরে যাওয়ার পর এই দলের একজন কিংবদন্তি হিসেবে নিজেকে দেখতে চাই। আমি এই বড় পরিবারটার একটা অংশ হতে চাই।’

virgil van dijk nederlands captainফন ডাইক

২৮ বছর বয়সী ফন ডাইক ইতোমধ্যে নিজের অপরিহার্যতা তুলে ধরেছেন। আগুন ঝরাচ্ছেন অল রেডদের রক্ষণভাগে। যার সুফল পাচ্ছে লিভারপুল। তারা সুবাস পাচ্ছে ইংলিশ লিগ শিরোপার। করোনাভাইরাসের কারণে লিগ স্থগিত হওয়ার আগ পর্যন্ত দুইয়ে থাকা ম্যানচেস্টার সিটির চেয়ে ২৫ পয়েন্ট এগিয়ে আছে লিভারপুল।

শুধু দলীয় অর্জনই নয়, ব্যক্তিগত সাফল্যেও আপন মহিমায় ভাস্বর ফন ডাইক। গত বছরই উয়েফার বর্ষসেরা ফুটবলার নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। এ ছাড়া ব্যালন ডি’অরের লড়াইয়ে দ্বিতীয় সেরার স্বীকৃতি পেয়েছেন ডাচ ডিফেন্ডার।