advertisement
আপনি দেখছেন

মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণজনিত কারণে মারা গেলেন সাবেক ফুটবলার গোলাম রব্বানী হেলাল। আজ দুপুর ১২টায় রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর। সাবেক গোলরক্ষক মেহেদি হাসান জানান বাদ আসর বাফুফে ভবনের সামনে মরহুমের জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

footballer helal bangladesh

সুদূর বরিশাল থেকে উঠে এসে নিজ মেধা, পরিশ্রমে সবার নজর কেড়েছিলেন সাবেক এই মিডফিল্ডার। জাতীয় পর্যায়ে যাত্রা শুরু করেন সত্তর দশকের শেষ দিকে। এরপর জাতীয় দলে সার্ভিস দিয়েছেন ১৯৭৯ থেকে টানা ৭ বছর।

হেলাল আর আবাহনী যেন এক সূতায় গাথা ছিল। ঘরোয়া ক্যারিয়ারের পুরো সময়টাই আকাশী-নীল শিবিরে কাটিয়েছেন। খেলেছেন ১৯৭৫ থেকে ১৯৮৮ সাল পর্যন্ত। মাঝে সামান্য কয়টা মাসের জন্য নাম লিখিয়েছিলেন বিজেএমসিতে।

১৯৮২ সালে আবাহনী-মোহামেডান দ্বৈরথে ঝামেলা পাকায় জেল খাটতে হয়েছিল আবাহনীর চার ফুটবলারকে। হেলাল তাদের মধ্যে একজন। বাকি তিনজন হলেন কাজী সালাহউদ্দিন, কাজী আনোয়ার এবং আশরাফ উদ্দিন চুন্নু।

শুধু ফুটবলার হিসেবেই নয়, একজন সংগঠক হিসেবেও আবাহনীর সাথে তার সখ্যতা নিত্যদিনের। ছিলেন এই ঐতিহ্যবাহী ক্লাবের পরিচালক। এছাড়াও বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের নির্বাহী কমিটির সদস্য হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। তবে সবকিছু ছাপিয়ে একজন ফুটবলার হিসেবে বেশি জনপ্রিয় ছিলে গোলাম রব্বানী হেলাল।

sheikh mujib 2020