advertisement
আপনি দেখছেন

স্প্যানিশ লা লিগায় শিরোপা দৌড়ে আরো একধাপ এগিয়ে গেল রিয়াল মাদ্রিদ। শুক্রবার রাতে অ্যালাভেসকে ২-০ গোলে হারিয়ে জয়যাত্রা ধরে রাখল জিনেদিন জিদানের দল। এই জয়ে দুইয়ে থাকা বার্সেলোনার সঙ্গে পয়েন্ট ব্যবধান বাড়িয়ে ফের চার করে ফেলল লস ব্ল্যাঙ্কোসরা।

benzema took penalty kick

লিগের ৩৫তম রাউন্ড শেষে রিয়াল মাদ্রিদের সংগ্রহ ৮০ পয়েন্ট। চার পয়েন্ট পিছিয়ে আছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনা। যার অর্থ দাঁড়াচ্ছে, বাকি তিন ম্যাচে পাঁচ পয়েন্ট পেলেই ২০১৭ সালের পর আবারো লা লিগা চ্যাম্পিয়ন হচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ। সোমবারই রিয়ালের চ্যাম্পিয়নশিপ নিশ্চিত হয়ে যেতে পারে।

সেক্ষেত্রে দুটি সমীকরণ মিলতে হবে। প্রথমত, আজ ভায়াদোলিদের বিরুদ্ধে হারতে হবে বার্সাকে এবং দুদিন পর গ্রানাডার বিরুদ্ধে জিততে হবে রিয়ালকে। বার্সা অবশ্য এই সুযোগটা দিতে চাইবে না চিরশত্রুদের। লিগের শেষ দিন পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার করেছে কাতালনরা। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে শিরোপা লড়াই শেষ দিনে যাবে তো?

না যাওয়ারই কথা। কারণ করোনাভাইরাস বিরতি পরবর্তী দারুণ ছন্দে আছে রিয়াল মাদ্রিদ। নতুন শুরুর পর এক পয়েন্টও হাতছাড়া করেনি জিদানের দল। যথারীতি শুক্রবার রাতেও জয়ের নিশ্চিদ্র পথে হাঁটল রিয়াল। এদিন ঘরের মাঠে অ্যালাভেসকে সহজেই হারিয়েছেন জিদানের শিষ্যরা।

real madrid celebration 2020 1

রিয়ালের দারুণ জয়ের নায়ক করিম বেনজেমা। দুই অর্ধের শুরুর দিকে দলের দুটো গোলেই অবদান থাকল ফরাসি স্ট্রাইকারের। ১১ মিনিটে পেনাল্টি থেকে স্বাগতিকদের লিড এনে দেন বেনজেমা। রিয়াল পেনাল্টি পেয়েছে অ্যালাভেস ডিফেন্ডার জিমো নাভারোর ভুলে; ডি-বক্সে তিনি ফারল্যান্ড মেন্ডিকে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় জিদানের দল।

গত ১৪ বছরের মধ্যে প্রথমবার টানা তিন ম্যাচে পেনাল্টি পেল রিয়াল মাদ্রিদ। তবে স্পট কিক থেকে গোল করার সুযোগ ছিল না আগের ‍দুই ম্যাচ জয়ের নায়ক সার্জিও রামোসের। কারণ নিষেধাজ্ঞা নিয়ে এদিন মাঠের বাইরে ছিলেন তিনি। চোটের কারণে আবার খেলতে পারেননি দুই ডিফেন্ডার ড্যানি কারভালহো এবং মার্সেলো ভিয়েরা।

তাদের অভাব বুঝতেই দেননি রাফায়েল ভারানের নেতৃত্বাধীন রিয়ালের রক্ষণভাগ। এদিন অনিয়মিত রক্ষণ নিয়েই দুর্দান্ত খেলেছে সাদা শিবির। তবে ২৯ শতাংশ বল পায়ে রেখেই রিয়াল ডিফেন্ডারদের ভালোই পরীক্ষা নিয়েছে অ্যালাভেস। তবে স্বাগতিকদের জন্য এটা হতাশার যে, সিংগভাগ বল দখলে রেখেও দুটির বেশি গোল পায়নি তারা।

karim benzema 2020 1

কয়েকদিন ধরেই রেফারিং ও ভিএআর নিয়ে ধারাবাহিক অভিযোগ তুলে যাচ্ছে বার্সেলোনা। আশ্চর্যজনকভাবে এদিনও রিয়াল জিতেছে ভিএআরের ওপর দাঁড়িয়ে! ম্যাচ শুরুর দিকে রিয়াল পেনাল্টি পেয়েছে প্রযুক্তির সহায়তা। ৫০ মিনিটে দল দ্বিতীয় যে গোলটা পেয়েছে সেখানেও ছিল ভিএআরের আশীর্বাদ!

বেনজেমার সহায়তায় ব্যবধান দ্বিগুণ করেন মার্কো অ্যাসেনসিও। গোলের আগে ফরাসি ফরওয়ার্ড অফসাইডে ছিলেন কিনা এনিয়ে একটা সংশয় ছিল। যা কেটে গেছে ভিএআর থেকে। এদিক থেকে অ্যালাভেস নিজেদের দুর্ভাগা ভাবতেই পারে। দুর্ভাগ্য তাদের পিছু নিয়েছিল ম্যাচের প্রথম মিনিটেই। হোসেলুর দুর্দান্ত হেড ফিরে এসেছে রিয়ালের পেস্টে লেগে।

ম্যাচে রিয়ালের বড় বিপদ বলতে এই একটাই গেছে। এরপরও অ্যালাভেস যা আক্রমণ করেছে তা প্রতিহত করে দিয়েছেন রিয়াল গোলরক্ষক থিবাউট কোর্তোয়া।

sheikh mujib 2020