advertisement
আপনি দেখছেন

ঘরের মাঠ অ্যানফিল্ড স্টেডিয়ামে অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেছিল লিভারপুল। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে নিজেদের দুর্গে টানা ২৪ ম্যাচ জিতেছিল অল রেডরা। এই মৌসুমেই লিগে টানা ১৭ ম্যাচ জিতেছে ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। সেই লিভারপুল কিনা পা হড়কাল পুঁচকে বার্নলির কাছে! শনিবার রাতে তাদের ১-১ গোলে রুখে দিয়েছে বার্নলি।

liverpool head coach jurgen klopp

এই ড্রয়ে লিগে ঘরের মাঠে শতভাগ জয়ের রেকর্ড হাতছাড়া করল লিভারপুল। স্বাভাবিকভাবেই ফলটা মেনে নিতে পারেননি দলটির প্রধান কোচ। অল রেডদের হতাশ করেছেন বার্নলি গোলরক্ষক নিক পোপ। এদিন বার্নলির তিন কাঠির নিচে অতিমানবীয় পারফর্ম করেছেন তিনি। পোপের রাতে ২৩টি আক্রমণ করে মোটে একটি গোল পেয়েছে লিভারপুল।

শুধু বার্নলি গোলরক্ষকই নয়, স্বাগতিকদের কিছুটা হতাশ করেছেন রেফারি ডেভিড কুতি। ম্যাচ শেষে তাকে ধুয়ে দিয়েছেন ক্লপ, ‘এটা দুর্দান্ত একটা ম্যাচ ছিল। কিন্তু আমরাই বার্নলির জন্য দরজা খুলে দিয়েছি এবং আমাদের এটা বন্ধ রাখা উচিত ছিল। আমাদের অন্তত দুই, তিন কিংবা চারটা গোল করা উচিত ছিল। রেফারি আমাদের চ্যালেঞ্জটা বাড়িয়ে দিয়েছিলেন।’

pope and klopp

এদিন ম্যাচে কয়েকটি সিদ্ধান্ত লিভারপুলের বিরুদ্ধে গেছে। তাতে চটেছেন দলটির কোচ ক্লপ। তবে নিজেকে সংবরণ করেছেন জার্মান কোচ, ‘তাদের (রেফারিদের) যেটা ভালো মনে হয়েছে সেটাই করেছে। আমি তাদের সম্মান করি।’

অবশ্য রেফারিকে কাঠগড়ায় দাঁড় করালেও শিষ্যদের পারফরম্যান্স নিয়েও তৃপ্ত হতে পারেননি জার্মান কোচ, ‘এটা আমাদের ভুল ছিল। নিজেদের কাজটা করতে পারিনি। আমরা এক পয়েন্ট পেয়েছি। যদিও এটা আমাদের প্রত্যাশায় ছিল না। আমার কাছে এমন লাগছে যে, ম্যাচটা আমরা হেরে গেছি।’

অবশ্য শিষ্যদের সমালোচনা করলেও প্রতিপক্ষ গোলরক্ষক পোপকে তার প্র্যাপ্য প্রশংসাটাই দিয়েছেন লিভারপুল কোচ। বলেছেন, ‘অবশ্যই এটা আমাদের জন্য হতাশার একটা ম্যাচ। ম্যাচ শেষে আমরা নিক পোপের পিঠ চাপড়ে দিয়েছি। ও দুর্দান্ত কিছু গোল বাঁচিয়েছে। একটা পর্যায়ে আমার মনে হচ্ছিল লড়াইটা লিভারপুল বনাম পোপের! সত্যিই ও দুর্দান্ত খেলেছে।’

sheikh mujib 2020