advertisement
আপনি দেখছেন

যেতে নাহি দেব, তবুও যেতে দিতে হয়- এটাই চিরন্তন। কিন্তু তার পরও কিছু কিছু ক্ষেত্র রয়েছে যেখানে, যেতে দিতে হলেও হৃদয় ভেঙে যায়। ফুটবল জাদুকর ম্যারাডোনার ক্ষেত্রেও তেমনটাই হলো। শেষ বিদায়ের কালে আবেগ থামাতে পারেননি লাখো ভক্ত। তাই তো পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ পর্যন্ত ঘটে গেল।

clash marandoan fans police homeশেষ বিদায়ে ম্যারাডোনা সমর্থকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ

স্থানীয় গণমাধ্যম বলছে, ডিয়েগোর শেষ বিদায়ে আর্জেন্টিনার প্রেসিডেনশিয়াল প্যালেস কাসা রোসাদার আশপাশে ঢল নেমেছিল ভক্তদের। কান্নার রোল পড়ে যায়। সবাই চোখের জলে ভিজেছেন। কিন্তু তাই বলে তো আর বাকি কাজ থেমে থাকতে পারে না। প্রেসিডেন্ট প্রাসাদ থেকে সমাধিক্ষেত্র বেল্লা ভিস্তার দিকে যাত্রা করে মহানায়কের কফিনবহনকারী গাড়ি।

পরিবার ও ঘনিষ্ঠজনদের উপস্থিতিতে শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হওয়ার পর আর্জেন্টাইন কিংবদন্তিকে সমাহিত করা হয়। এর আগে দেশটির রাজধানী বুয়েনস আয়ার্সের সিটি স্কয়ার প্লাজা দে মায়ো থেকে ম্যারাডোনাকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে সারি বেঁধে দাঁড়িয়ে যান ভক্তরা। তখন লোকে লোকারণ্য ছিল গোটা এলাকা।

clash marandoan fans policeশেষ বিদায়ে ম্যারাডোনা সমর্থকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ

ম্যারাডোনা ভক্তদের চাপ সামলাতে দেশটির পুলিশকে হিমশিম খেতে হয়। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে প্রস্তুত ছিল দাঙ্গা পুলিশও। কিন্তু তার পরও সামাল দিতে পারেনি পুলিশ। এক পর্যায়ে পুলিশের সঙ্গে ভক্তদের সংঘর্ষ লেগে যায়।

বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, শোকের পরিবেশ এক পর্যায়ে উত্তপ্ত হয়ে যায়। ভক্তদের উত্তেজনা প্রশমনে শেষ পর্যন্ত পুলিশকে কাঁদানে গ্যাস, রাবার বুলেট ও জলকামান ব্যবহার করতে বাধ্য হতে হয়। ইতোমধ্যে ওই ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

clash marandoan fans police 2শেষ বিদায়ে ম্যারাডোনা সমর্থকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ

থেমে থাকেনি ‘ফুটবল ঈশ্বরের’ ভক্তরাও। পুলিশের দেওয়া বেড়া ভেঙে ম্যারাডোনাকে শেষ শ্রদ্ধা জানানোর সীমানার মধ্যে ঢুকে পড়েন অনেকে। কেউ কেউ আবার পুলিশের দিকে বোতল ও বেড়া ছুড়েও মেরেছেন।

sheikh mujib 2020