advertisement
আপনি দেখছেন

নতুন মৌসুমে দারুণ শুরুর পরও ছন্দটা ধরে রাখতে পারল না ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। এমনকি ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর মতো ফুটবলার থাকা সত্ত্বেও। আসলে পর্তুগিজ যুবরাজকে ঠিকঠাক ব্যবহার করছেন না রেড ডেভিলস কোচ ওলে গানার সুলশার। রোনালদোর একাদশে থাকা নিয়েই সংশয় থাকে অনেকের।

zidane could be replace solskjaerওলে গানার সুলশার ও জিনেদিন জিদান

অনেক বিতর্কের পর সবশেষ ম্যাচে আবারো রোনালদোকে ফেরানো হয়েছে একাদশে। কিন্তু লেস্টার সিটির বিপক্ষে প্রত্যাবর্তনটা সুখের হয়নি 'সিআর সেভেনে'র। গেল শনিবার রাতে কিংস পাওয়ার স্টেডিয়ামে ছয় গোলের থ্রিলার ম্যাচে ৪-২ ব্যবধানে হেরেছে সুলশারের ইউনাইটেড।

শিষ্য রোনালদোর সঙ্গে শীতল যুদ্ধ এবং লেস্টার ম্যাচে হারের জের ধরে সুলশারকে সরিয়ে দেওয়ার দাবি উঠল। ক্লাবের ৮৭ শতাংশ সমর্থক আর নরওয়েজান কোচকে ওল্ড ট্রাফোর্ডে দেখতে চান না। ডাগ আউটে জরুরি ভিত্তিতে পরিবর্তনের দাবি জানিয়েছেন রেড ডেভিলস ভক্তরা। এই ভোটাভুটিতে অংশ নেন দুই হাজার ক্লাব সমর্থক।

সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে শেষ পাঁচ ম্যাচের মোটে একটিতে জিতেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। তন্মধ্যে হার তিনটি এবং ড্র দুটি। অবাক করার তথ্য হচ্ছে ফিট থাকা সত্ত্বেও এই পাঁচ ম্যাচের দুটিতে খেলেননি রোনালদো। একটিতে নেমেছেন বেঞ্চ ছেড়ে।

এ নিয়ে ভালোই বিতর্ক হয়েছে। বিতর্কে মুখ খুলেছেন ক্লাবের কিংবদন্তি কোচ স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসনও। রোনালদোকে প্রথম একাদশ থেকেই খেলানোর পরামর্শ দিয়েছেন স্কটিশ কোচ। অনেকে আবার সুলশারকে সরিয়ে জিনেদিন জিদান কিংবা অ্যান্তনিও কন্তেকে নিয়োগ দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।

২০১৮ সালের ডিসেম্বরে ৪৮ বছর বয়সী কোচকে নিয়োগ দেয় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। গত মৌসুমে তার অধীনে রেড ডেভিলসরা ভালোই করেছে। এই মৌসুমে শিরোপা জয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন নরওয়েজান কোচ। সে লক্ষ্যে জ্যাডন স্যানচো, রাফায়েল ভারানে এবং রোনলদোর মতো ফুটবলারকে দলে টেনেছে জায়ান্ট দলটি।