advertisement
আপনি পড়ছেন

আরও একবার জ্বলে উঠলেন পিএসজির আক্রমণভাগের তিন সারথি। লিওনেল মেসি, নেইমার জুনিয়র, কিলিয়ান এমবাপ্পের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি ক্লারমন্ট ফুট। প্লেকার লিওনেল মেসি তো ছিলেন নিজের সেরা ছন্দে। তিন ত্রয়ীর এমন পারফর্মেন্সে ইমানুয়েল গাসের দলের বিপক্ষে ৬-১ গোলের বড় জয় তুলে নিয়েছে ফরাসি লিগ ওয়ান জায়ান্টরা।

messi neymar mbappe psg 1মেসি নেইমার এবং এমবাপ্পে

রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হেরে চলমান উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোল থেকে বিদায় নিয়েছে পিএসজি। এরপর থেকে যেন থামানোই যাচ্ছে না প্যারিসের ক্লাবটিকে। লিগে গত ৪ এপ্রিল লরিয়েন্টকে ৫-১ ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়েছে। সেদিন জোড়া গোল করেন এমবাপ্পে এবং নেইমার। অন্যটি করেন মেসি।

লরিয়েন্টের বিপক্ষে অল্পের জন্য হ্যাটট্রিক করতে পারেননি নেইমার এবং এমবাপ্পে। ক্লারমন্ট ফুটের বিপক্ষে সে আক্ষেপ গুচিয়ে দুইজনই সমান তিনবার করে স্কোরশিটে নাম তুলেছেন। যদিও এদিন গোল পাননি মেসি। কিন্তু সতীর্থদের তিনটি গোলে অর্থাৎ হ্যাটট্রিক অ্যাসিস্ট করেছেন আর্জেন্টাইন জাদুকর।

lionel messi psg 5লিওনেল মেসি

বিরতির আগে ক্লারমন্ট ফুটের জালে দুইবার বল পাঠায় পিএসজি। গ্যাব্রিয়েল মন্টপিয়েড স্টেডিয়ামে ষষ্ঠ মিনিটে নেইমারের গোল দিয়ে লিড নেয় সফরকারীরা। তবে ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডের আগেই হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন এমবাপ্পে। ১৯, ৭৪ এবং ৮০ মিনিটে লক্ষ্যভেদ করেন সাবেক মোনাকো তারকা।

অন্যদিকে নেইমারের বাকি গোল দুটি আসে ম্যাচের ৭১ এবং ৮৩ মিনিটে। এরমধ্যে প্রথম গোলটা স্পটকিক থেকে করেন ব্রাজিলিয়ান তারকা। স্বাগতিকদের হয়ে একমাত্র গোলটি করেন ডোসো। এর আগে প্রথম লেগে ক্লারমন্ট ফুটকে ৪-০ ব্যবধানে হারিয়েছিল মাওরিসিও পচেত্তিনোর দল।

৩১ ম্যাচে ৭১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান দখলে রেখেছে পিএসজি। ৫৬ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে অবস্থান করছে রেনেস।