advertisement
আপনি পড়ছেন

গোড়ালির পেছনের জয়েন্টের চোটের কারণে অ্যাঞ্জার্সের বিপক্ষে ফরাসি লিগ ওয়ানের ম্যাচে লিওনেল মেসিকে ছাড়াই মাঠে নেমেছিল প্যারিস সেন্ট জার্মেই, পিএসজি। ছিলেন না আরেক ফরোয়ার্ড নেইমার জুনিয়রও। মাঠের খেলায় এসব কোন প্রভাবই পড়ল না প্যারিসের ক্লাবটির জন্য। জেরাল্ড বাটিকলের দলকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে মাওরিসিও পচেত্তিনোর শিষ্যরা।

psg vs angers 1টানা চতুর্থ জয় তুলে নিয়েছে পিএসজি

শুধু মেসি-নেইমার নন, সবশেষ ম্যাচের দল থেকে আরও পাঁচ পরিবর্তন নিয়ে অ্যাঞ্জার্সের মোকাবেলা করতে নেমেছিল পিএসজি। এরপরও রেমন্ড কোপা স্টেডিয়ামে সফরকারী দলের কোন পরীক্ষা নিতে পারেনি নিচের সারির দলটি। ঘরের মাঠে পিএসজির আক্রমণের চাপ সামাল দেওয়ার ছক কষতেই ব্যস্ত সময় পার করেছে স্বাগতিকরা।

বিরতির আগেই দুইবার লক্ষ্যভেদ করে পিএসজি। ফরাসি স্ট্রাইকার কিলিয়ান এমবাপ্পের গোলে এগিয়ে যায় অতিথিরা। ব্যবধান দ্বিগুণ করেন স্প্যানিশ ডিফেন্ডার সার্জিও রামোস। সফরকারীদের হয়ে শেষ গোলটি করেন ব্রাজিলিয়ান তারকা মারকুইনহোস।

psg vs angers 2শেষ গোলটি করেন মারকুইনহোস

ম্যাচের শেষদিকে ১০ জনের দলে পরিণত হয় পিএসজি। প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডার থমাসকে ফাউল করে লাল কার্ড দেখেন এদুয়ার্দো মিচুত। এ নিয়ে লিগ ওয়ানে টানা চতুর্থ জয়ের দেখা পেল পিএসজি। সবশেষ গত ২০ মার্চ মোনাকোর মাঠে ৩-০ গোলে হেরেছিল চলমান চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোল থেকে বিদায় নেওয়া দলটি।

অ্যাঞ্জার্সকে হারালেও শিরোপার অপেক্ষা দীর্ঘ হয়েছে পিএসজির। একই সময় অপর ম্যাচে ন্যান্টসের বিপক্ষে মাঠে নেমেছিল মার্সেই। সেখানে মার্সেই পয়েন্ট হারালেই কাজ হয়ে যেতো পিএসজির। কিন্তু ঘুরে দাঁড়িয়ে জয় তুলে নিয়েছে টেবিলের দুই নম্বর দলটি।

৩৩ রাউন্ড শেষে পিএসজির নামের পাশে আছে ৭৭ পয়েন্ট। সমান ম্যাচে মার্সেইয়ের সংগ্রহ ৬২ পয়েন্ট। ৫৬ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে অবস্থান করছে রেনেস।