advertisement
আপনি পড়ছেন

প্যারিস সেন্ট জার্মেইর (পিএসজি) সঙ্গে কিলিয়ান এমবাপ্পের চুক্তির মেয়াদ শেষ হচ্ছে দুই মাস এক সপ্তাহ পর। এরপর কী করবেন ফরাসি সেনসেশন? স্বপ্নের ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদে চলে যাবেন নাকি থেকে যাবে প্যারিসে? উত্তরের জন্য আরো কিছুদিন অপেক্ষা করতে হচ্ছে। সিদ্ধান্ত নিতে আপাতত দুই পক্ষের সঙ্গেই আলোচনায় বসবেন এমবাপ্পের এজেন্ট ও রত্নগর্ভা ফায়জা লামারি।

kylian mbappe 2এমবাপ্পে

পিএসজির নীতি নির্ধারকদের সঙ্গে আলোচনা করতে ইতোমধ্যে কাতারের দোহায় পৌঁছেছেন এমবাপ্পের মা। কাতারি ধনকুবেরদের সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি চলে যাবেন মাদ্রিদে। সেখানে রিয়াল মাদ্রিদ প্রেসিডেন্ট ফ্লোরেন্তিনোর সঙ্গে বৈঠক করবেন লামারি। দুই পক্ষের সঙ্গে কথাবার্তা শেষ করার পর এমবাপ্পে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন বলে এক প্রবিদেনে জানিয়েছে স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক মার্কা।

এর মধ্যে দারুণ একটা খবর দিল ফুটবল বিষয়ক ওয়েবসাইট গোলডটকম। শুক্রবার রাতে এক প্রতিবেদনে তারা জানিয়েছে, এমবাপ্পেকে নতুন চুক্তিতে ফেরাতে অবিশ্বাস্য অংক প্রস্তাব দিয়ে বসেছে পিএসজি। চুক্তির অংকটা মাথা ঘুরিয়ে দেওয়ার মতোই। বছরে ৫০ মিলিয়ন ইউরো। তেমনকিছু ঘটলে সেটা হবে পারিশ্রমিকের বিশ্ব রেকর্ড। শুধু তাই নয়, বাড়তি বোনাসও দেওয়া হবে এমবাপ্পেকে।

এই মৌসুমের শুরু থেকে এমবাপ্পের সই নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে পিএসজি। রিয়াল মাদ্রিদও তাকে দলে টানতে অনেক দিন ধরে চেষ্টা করে যাচ্ছে। দুই ক্লাবের মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা বাড়িয়ে দিয়েছেন এমবাপ্পে মাঠের দুরন্ত পারফরম্যান্সে। এই মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে পিএসজির হয়ে ৩৩টি গোল করেছেন ফরাসি ফরওয়ার্ড। এমন একটা গোলমেশিনকে কে হাতছাড়া করতে চায়?

২০১৭ সালে মোনাকে থেকে এমবাপ্পেকে উড়িয়ে আনে পিএসজি। পরের বছর তাকে পাকাপাকিভাবে রেখে দেয় প্যারিসিয়ানরা। পিএসজিতে যোগ দেওয়ার পর এখন অবধি ১৬৫টি গোল করেছেন বিশ্বজয়ী তারকা। সংখ্যাটা বাড়তেই থাকবে নাকি আগামী মৌসুমে ফ্রি টান্সফারে দলবদল করবেন এমবাপ্পে? তবে তার জন্য রিয়ালে যাওয়া যতটা কঠিন ততটাই সহজ পিএসজিতে থেকে যাওয়া।

রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে এমবাপ্পের বনিবনা একটা জায়গায় আটকে আছে। তা হচ্ছে ইমেজ স্বত্ব। ফরাসি তারকার চাওয়া ইমেজ স্বত্বের শতভাগ নিয়ন্ত্রণ। তবে রিয়াল চাচ্ছে অর্ধেক-অর্ধেক। এ নিয়ে অবশ্য পিএসজির কোনো আপত্তি নেই। এমবাপ্পেকে তার ইমেজ স্বত্বের শতভাগ দিয়ে দিতে রাজি অছে ফরাসি ক্লাবটি। এরপরও যদি এমবাপ্পেকে পিএসজি ধরে রাখতে না পারে সেটা হবে তাদের দুর্ভাগ্য।