advertisement
আপনি পড়ছেন

বুরুসিয়া ডর্টমুন্ড ছাড়ছেন আর্লিং হল্যান্ড- কদিন আগে ইউরোপিয়ান ফুটবলে বেরিয়েছে খবরটা। সেটাকে স্রেফ গুঞ্জন বলে উড়িয়ে দেওয়ার উপায় ছিল না। সত্যি সত্যিই সিগনাল ইদুনা পার্ক ছাড়ছেন নরওয়েজন স্ট্রাইকার। তার পরবর্তী ঠিকানাও নিশ্চিত হয়ে গেছে। দ্য অ্যাথলেটিকের খবর সত্যি হলে, নতুন মৌসুমে হল্যান্ডের ঠিকানা হচ্ছে ম্যানচেস্টার সিটি।

erling haaland 8আর্লিং হল্যান্ড

২১ বছর বয়সী স্ট্রাইকার হাঁটতে যাচ্ছেন তার বাবার পথেই। ২০০০ সালে ম্যানচেস্টার সিটিতে যোগ দেওয়ার পর ইতিহাদ চত্বরে তিন বছর সময় কেটেছে আলফি হল্যান্ডের। কিন্তু ইংলিশ ক্লাবটিতে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারেননি। তার ছেলে পারবেন তো? উত্তরটা তোলা থাকল সময়ের হাতে। সবকিছু ঠিক থাকলে প্রাক মৌসুম প্রস্তুতির সময়ে সিটিতে যোগ দেবেন হল্যান্ড।

নরওয়েজান সেনসেশনকে দলে টানার লড়াইয়ে ছিল অনেক বড় বড় ক্লাব। রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা, বায়ার্ন মিউনিখ, প্যারিস সেন্ট জার্মেইকে (পিএসজি) তুরুপের তাস দেখিয়ে হল্যান্ডকে দলে টানল ম্যানচেস্টার সিটি। হাল্যান্ডকে উড়িয়ে আনতে অবশ্য খুব বেশি অর্থ খরচ করতে হচ্ছে না ইংলিশ ক্লাবটিকে। মাত্র ৭৫ মিলিয়ন ইউরো। হল্যান্ডের ফর্ম এবং বাজার বিবেচনায় তাকে সস্তা দামেই পাচ্ছে সিটি।

manchester city logo 1ম্যানচেস্টার সিটি

ডর্টমুন্ডে আসার সময়ই হল্যান্ডের রিলিজ ক্লজের দাম কম ধরা হয়েছে। সেই সুযোগটা এবার কাজে লাগাল সিটি। হল্যান্ডেরও ইচ্ছে ছিল ম্যানচেস্টার সিটিতে আসার। দুইয়ে দুইয়ে চার মিলে গেল। এই সপ্তাহের মধ্যেই জার্মান ক্লাব ডর্টমুন্ডকে হল্যান্ডের রিলিজ ক্লজের মূল্যটা পরিশোধ করে দেবে সিটি। আজ এক প্রতিবেদনে চমকপ্রদ দলবদলের খবরটা দিয়েছে ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্য অ্যাথলেটিক।

প্রচারমাধ্যমটির দাবি, ইতোমধ্যে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি নাকি হয়ে গেছে। যে কোনো মুহূর্তে আসতে পারে চুক্তির আনুষ্ঠানিক ঘোষণা। এর আগ পর্যন্ত ভক্তদের খচখচানি যে শেষ হবে না! ২০২০ সালে রেডবুল সালজবুর্গ থেকে ডর্টমুন্ডে যোগ দেন হল্যান্ড। জার্মান ক্লাবটির জার্সিতে ৮৮ ম্যাচে ৮৫টি গোল আছে তার। হল্যান্ডের বদলি সেই সালজবুর্গ থেকেই নাকি নিয়ে এসেছে ডর্টমুন্ড!