advertisement
আপনি পড়ছেন

সাউদাম্পটনের বিপক্ষে শুরুতেই পিছিয়ে পড়া লিভারপুলকে ম্যাচে ফেরান তাকুমি মিনামিনো। বাঁচা-মরার লড়াইয়ে উতরে যাওয়ার জন্য সেটাই যথেষ্ট ছিল না। অবশেষে রেড শিবিরে স্বস্তি ফিরিয়েছেন জোয়েল মাতিপ। দারুণ এক গোলে নিশ্চিত করেছেন দলের জয়। সেই সাথে একটি রেকর্ডের মালিক হয়েছেন ৩০ বছর বয়সী এই ডিফেন্ডার।

joel matip recordজয়সূচক গোলের পর মাতিপকে ঘিরে লিভারপুল খেলোয়াড়দের উল্লাস

সাউদাম্পটনের কাছে হারলেই চলমান লিগ শিরোপার দৌড় থেকে ছিটতে যেতো লিভারপুল। ইংল্যান্ডের শীর্ষ লিগের টানা দ্বিতীয় শিরোপা নিশ্চিত হতো পেপ গার্দিওলার দল ম্যানচেস্টার সিটির। সেন্ট মেরিস স্টেডিয়ামে ম্যাচের ১৩ মিনিটে নাথান রেডমন্ড জাল ভেদ করে সফরকারীদের চিন্তায় ফেলে দেন। অবশ্য সমতা টানতে বেশি অপেক্ষা করতে হয়নি ইয়ুর্গেন ক্লপের দলকে। ২৭ মিনিটে জোরালো শটে কাঙ্ক্ষিত ঠিকানায় বল পাঠান জাপানিজ উইঙ্গার মিনামিনো।

৬৭ মিনিটে এগিয়ে যায় লিভারপুল। সতীর্থ সিমিকাসের কর্ণার থেকে মাতিপের মাথা ছোঁয়া বল ঠিকানা খুঁজে নেয়। এরপর অনেক চেষ্টা করেও সে গোলটার শোধ দিতে পারেনি রালফ হ্যাসেনহাটলের শিষ্যরা। ২-১ গোলের জয়ে শিরোপার লড়াইটা শেষ রাউন্ডে নিয়ে যায় ইংল্যান্ডের শীর্ষ দলটি।

liverpool have won 3স্বস্তির জয়ে লিভারপুল বস ক্লপও বেশ খুশি

সাউদাম্পটনের বিপক্ষে হেডে মাতিপের করা গোলটি লিভারপুলের জার্সিতে অষ্টম। এর আগে পৃথক পৃথক ম্যাচে এই জার্মান সেন্টার ব্যাকের করা সাত গোলেও জয় পেয়েছিল লিভারপুল। প্রিমিয়ার লিগে অতীতে এমন রেকর্ড করে দেখাতে পারেনি আর অন্য কোনো ফুটবলার।

২০১৬ সালে জার্মানির ক্লাব শালকে জিরো ফোর ছেড়ে লিভারপুলে যোগ দেন মাতিপ। এরপর থেকে এখন পর্যন্ত ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে খেলেছেন ১২৫ ম্যাচ। যেখানে মাত্র ১০ ম্যাচে হেরেছে লিভারপুল। লিগটিতে অন্তত ১০০ ম্যাচ খেলেছেন এমন ১ হাজার ৮১ জন খেলোয়াড়দের মধ্যে যা হারের অনুপাতে সর্বনিম্ন।

লিগ শিরোপা ঘরে তুলতে চাইলে শেষ ম্যাচে জিততে হবে লিভারপুলকে। অন্যদিকে পয়েন্ট হারাতে হবে ম্যানসিটিকে। এসবের নিষ্পত্তি হবে আগামী ২২ মে। সেদিন এই দুই জয়ান্ট মাঠে নামবে যথাক্রমে উলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্স এবং অ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে। যদিও প্রতিপক্ষের শক্তি সামর্থ্যের বিষয়টি মাথায় আনলে স্বস্তিতে থাকার উপায় নেই ক্লপের শিষ্যদের।