advertisement
আপনি পড়ছেন

ন্যুনতম একটি শিরোপাও না জেতা বার্সেলোনার জন্য ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে ম্যাচ থেকে কোনো কিছুই পাওয়ার ছিল না। জিতলে সেটা শুধু আগামী মৌসুমের প্রাণশক্তি হিসেবেই কাজ করত। উনাই এমেরির শিষ্যদের বিপক্ষে সেটা অর্জন করে নিতে পারেনি কাতালানরা। মৌসুমের শেষ ম্যাচে দ্বিতীয় সারির দলটির কাছে ২-০ গোলে পরাজিত হয়েছে সার্জিও বুসকেটস অ্যান্ড কোং।

barcelona team sad
ম্যাচ হারায় মন খারাপ বার্সেলোনার খেলোয়াড়দের

এবারের চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে খেলেছে ভিয়ারিয়াল। লিগে বাজে পারফরম্যান্সের কারণে আগামী মৌসুমে ক্লাব সেরাদের আসরে দেখা যাবে না দলটিকে। এরপরও বার্সেলোনার বিপক্ষে ম্যাচটা গুরুত্বপূর্ণ ছিল তাদের জন্য। দারুণ জয়ে সাত নম্বরে থেকে লিগ শেষ করায় উয়েফা কনফারেন্স লিগে জায়গা নিশ্চিত করেছে ভিয়ারিয়াল।

ক্যাম্প ন্যুতে দাপট দেখিয়েছে বার্সেলোনা। বল দখল এবং আক্রমণে এগিয়ে থাকলেও ফরোয়ার্ডদের ব্যর্থতায় গোল আদায় করে নিতে পারেনি ব্লুগ্রানররা। ফেররান তরেস, পিয়েরে এমেরিক আউবামেয়াং, আদামা ত্রাওরেরা বেশ কয়েকবার স্বাগতিকদের হতাশা উপহার দিয়েছেন। এ নিয়ে টানা দুই ম্যাচে পয়েন্ট হারাল জাভি হার্নান্দেজের দল। গত ১৫ মে গেতাফের সাথে গোলশূন্য ড্র করেছিল তারা।

villareal teamজয়ী দলের বাঁধভাঙা উল্লাস

প্রতিপক্ষের মাঠে দুই অর্ধে সমান একটি করে গোল করে ভিয়ারিয়াল। আলফনসো পেদ্রেজা সফরকারীদের এগিয়ে নেওয়ার পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন মোই গোমেজ। তাতেই এক ম্যাচ পর জয়ে ফিরল দলটি। ১৫ মে রিয়াল সোসিয়েদাদের কাছে ২-১ ব্যবধান হেরেছিল ভিয়ারিয়াল।

শেষ ম্যাচ হারলেও আগেই দ্বিতীয় স্থান নিশ্চিত করেছে বার্সেলোনা। ৭৩ পয়েন্ট নিয়ে লিগ শেষ করল কাতালানরা। শিরোপা জেতা রিয়াল মাদ্রিদের সংগ্রহ ৮৬ পয়েন্ট। অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ৭১ এবং সেভিয়ার নামের পাশে আছে ৭০ পয়েন্ট। বার্সেলোনা এবং রিয়াল মাদ্রিদের পাশাপাশি লা লিগা থেকে আগামী মৌসুমে চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলবে এই দুই দল।