advertisement
আপনি পড়ছেন

দীর্ঘদিন কোনো বৈশ্বিক আসরের শিরোপা ঘরে তোলা হয় না ইংল্যান্ডের। গত বছর খুব কাছে গিয়েও এই গোরো কাটাতে পারেনি ইংলিশরা। তবে বর্তমান সময়ের দুর্দান্ত দলটি নিয়ে বেশ আশাবাদী ডেকলান রাইস। স্কোয়াডের প্রায় প্রত্যেকেই শীর্ষ পর্যায়ের খেলোয়াড় হওয়ায় নিজেদের ‘ভয়ংকর’ বলে মনে করছেন ইংল্যান্ডের এই তারকা মিডফিল্ডার।

declan riceনিজেদের নিয়ে আত্মবিশ্বাসী রাইস

সবশেষ ১৯৬৬ সালে বিশ্বকাপ জিতেছিল ইংল্যান্ড। ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল থেকেই বিদায় নেয় জায়ান্টরা। গত বছর অনুষ্ঠিত ইউরোর ফাইনালে ইতালির কাছে টাইব্রেকারে হেরে রানার্সআপ হয় হ্যারি কেনরা। টানা দুবার খুব কাছে গিয়ে ফিরে আসলেও আগামী বিশ্বকাপে আর কোনো ভুল করতে চান না রাইস।

রহিম স্টার্লিং, ম্যাসন মাউন্ট, জ্যাক গ্রিলিশ, কেন, হ্যারি মাগুইরে, ট্যামি আব্রাহামদের ওপর ভরসা করেই বিশ্বকাপ শিরোপা পুনরুদ্ধারের মিশনে আত্মবিশ্বাসী রাইস। গোল ডটকমকে ওয়েস্টহ্যাম ইউনাইটেডের এই প্রতিভাবান ফুটবলার বলেন, ‘আমরা যে স্কোয়াড পেয়েছি, তাতে বিশ্বকাপ জেতার দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। ইউরোতে আমরা শিরোপার খুব কাছে গিয়ে ফিরে এসেছি। কিন্তু একজন ইংল্যান্ড সমর্থক এবং একজন খেলোয়াড় হিসেবে বলছি, এখন স্কোয়াডে যে কয়েকজন খেলোয়াড় পেয়েছি তারা কতটা ভালো তা দেখে ভয় লাগার কথা!’

england football team 2ইংল্যান্ড দলের একাংশ

‘কিছু দুর্দান্ত খেলোয়াড় আছে যারা ইংল্যান্ডের জার্সি গায়ে জড়াতে চায়। আমি মনে করি, আমরা একটি ভালো অবস্থানে আছি। তবে এটা তখনই উপলব্ধি করা যাবে যদি আমরা বিশ্বকাপে দেশের জন্য বড় কিছু করতে পারি। যদি আমরা কাতারে গিয়ে জিতে যাই, তাহলে এটা ১৯৬৬ সালের পর প্রথম বিশ্বকাপ হবে।’ যোগ করেন রাইস।