advertisement
আপনি দেখছেন

আঘাত পেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন চলতি এসএ গেমসে কারাতে ইভেন্ট থেকে বাংলাদেশকে স্বর্ণ এনে দেওয়া ক্রীড়াবিদ মারজান আক্তার প্রিয়া। বুধবার কারাতের দলগত ইভেন্টে অংশ নিয়ে মাথায় আঘাত পান তিনি।

marjan akhter injuredহাসপাতালে চিকিৎসাধীন মারজান আক্তার- ছবি সংগৃহীত

কাঠমান্ডুতে টুর্নামেন্টের চতুর্থ দিনে আজ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে কারাতের দলগত কুমির সেমি-ফাইনাল খেলতে নামে বাংলাদেশ। লড়াইয়ে বাংলাদেশের পক্ষে ছিলেন ব্যক্তিগত ইভেন্টে স্বর্ণজয়ী হোমায়রা আক্তার, মারজান আক্তার প্রিয়া ও রৌপ্য জয়ী মাউনজেরা বন্যা।

মারজান প্রিয়া আঘাত পেয়েছেন সেখানেই। লড়াইয়ের শুরুতেই মারজানের পেটে আঘাত করেন শ্রীলঙ্কার বান্দারা। এতে চিকিৎসা নিতে হয় তাকে। এরপর মুখে আঘাত করলে ঠোঁট ফেটে যায় মারজানের। এরপর চিকিৎসা নিয়ে টলতে টলতে আবারও ম্যাটে ফেরেন মারজান। এই সুযোগে বাংলাদেশি ক্রীড়াবিদের মাথায় আঘাত করেন শ্রীলঙ্কার বান্দারা। যাতে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন মারজান।

মেডিকেল টিম চেষ্টা করেও জ্ঞান ফেরাতে পারেননি মারজানের। যাতে স্থানীয় হাসপাতালে নেওয়া হয় বাংলাদেশি ক্রীড়াবিদকে। সেখান থেকে পরে সরকারি হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

এ বিষয়ে মারজানের সতীর্থ কারাতে খেলোয়াড় আবিদা সুলতানা বলছিলেন, ‘তখন দ্বিতীয় বাউটের খেলা ছিল। শ্রীলঙ্কার খেলোয়াড় অনেক জোরে মেরেছে মারজানকে। এটা অবশ্য খেলারই অংশ। এ জন্য রেফারি ফাউলও দেন। ও (মারজান) বারবার বলছিল, আমি খেলতে চাই। কিন্তু এই অবস্থায় কোনোভাবেই ওকে খেলতে দেবে না চিকিৎসকেরা। ওর ঘাড়ের পেছনে এখনো ব্যথা রয়েছে। চিকিৎসা চলছে। আশা করি দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠবে মারজান।’

গতকাল অনূর্ধ্ব-৫৫ কেজির ব্যক্তিগত ইভেন্টের ফাইনালে পাকিস্তানের কৌসরা সানাকে ৪-৩ পয়েন্টে হারিয়ে সোনা জিতেছিলেন মারাজান।