advertisement
আপনি দেখছেন

প্রতিযোগিতামূলক সাঁতারে নেমেছিলেন মাত্র ১২ বছর বয়সেই, ১৯৮১ সালে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ান (এসইএ) গেমসে। জিতেছিলেন রৌপ্যপদকও। এরপর আরো রূপা জিতলেও স্বর্ণপদকটা ছিলো অধরা। হার না মানা ইচ্ছাশক্তির জোরে এবার ৫০ বছর বয়সে সেই স্বর্ণের দেখাটাও পেয়ে গেলেন সিঙ্গাপুরের নারী সাতারু ক্রিস্টিনা থাম।

chrictina tham singapore

ফিলিপাইনে চলতি এসইএ গেমসে তার গলায় একটা নয় বরং শোভা পেল দুইটি স্বর্নপদক। আন্ডারওয়াটার হকিতে এই পদক দুটি জেতেন থাম। এবারই প্রথম খেলাটি এ প্রতিযোগিতায় অন্তর্ভুক্ত হলো।

এই ফিলিপাইনেই অভিষেক হয়েছিলো থামের। সেবার সাঁতারে চারশ মিটার মিডলে রিলেতে রৌপ্যপদক জেতেন থাম। দুই বছর পর সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিত এসইএ গেমসে ২০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে আবারো রৌপ্য জেতেন তিনি।

এরপর আইনি পেশা বেছে নেয়ায় প্রায় দুই দশকের বেশি সময় অ্যাথলেটিক থেকে দূরে থাকেন তিনি। ২০০৫ সালে থাম আবার ফেরেন সুইমিং পুলে, তবে এবার সাঁতারে না, বরং আন্ডারওয়াটার হকিতে।

সিঙ্গাপুরের সর্বোচ্চ গতিসম্পন্ন সাঁতারু দিসেবে দলে অন্তর্ভুক্তি মেলে বলে জানান থাম। তবে ৫০ এ পা রেখে স্বর্ন জিতবেন ভাবেননি কখনোই।উচ্ছ্বসিত থাম বলেন, এ বয়সে আবার এসইএ গেমসে ফিরব, গোল করব, স্বর্ণ জিতব, এটা মোটেই ভাবিনি।