advertisement
আপনি দেখছেন

কোনো নিয়মে নেই, তারপরও প্রকাশ্যে নারী সহকর্মীদের চুল কেটে সমালোচনার শিকার হলেন নাইজেরিয়ার একজন জ্যেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তা। আন্তর্জাতিক কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমে এ সংক্রান্ত একটি খবর নজর কেড়েছে। 

police officer cuts hair of women colleague

নাইজেরিয়ায় আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর এক প্যারেড পরিদর্শন করতে গিয়ে অনেক নারী পুলিশ সদস্যের লম্বা চুল দেখে সিনিয়র কমান্ডার রেগে যান এবং সেই প্যারেড গ্রাউন্ডেই নিজেই কাচি দিয়ে তার অধীনস্থ নারী কর্মকর্তাদের চুল কেটে ছোট করে দেন।

উল্লেখ্য, নাইজেরিয়ার সড়ক নিরাপত্তা সংস্থার নিয়ম অনুযায়ী সেখানকার কর্মরত নারী পুলিশ সদস্যদের চুল বাধা এবং রাখা নিয়ে কিছু বাধ্যবাধকতা আছে। তবে চুল বড় রাখা যাবে না বা চুল বড় রাখলে তা কেটে ফেলতে হবে; নিয়ে এ ধরনের কোনো কথা নেই।

নারী সদস্যদের চুল কাটার ছবি নাইজেরিয়ার সড়ক নিরাপত্তা সংস্থার ফেসবুকে পাতায় পোস্ট করা হয়েছিল। এরপর সোশ্যাল মিডিয়ায় সে ছবিগুলো ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে এবং ভাইরাল হয়ে যায়। এ নিয়ে তীব্র সমালোচনার মুখে সে ছবিগুলো অফিসিয়াল ফেসবুক পাতা থেকে সরিয়ে ফেলা হয়েছে।

নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট মোহাম্মাদু বুহারির একজন মুখপাত্র বিষয়টিকে নারীদের জন্য অবমাননাকর হিসেবে বর্ণনা করেছেন। অপর দিকে সড়ক নিরাপত্তা সংস্থার কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে বলা হয়েছে, এ ঘটনার সাথে জড়িত সব কর্মকর্তাকে ডাকা হয়েছে এবং ইতোমধ্যে একটি তদন্ত কাজও আরম্ভ হয়েছে।