advertisement
আপনি পড়ছেন

সোমবার কাশ্মিরে দুজন বিএসএফ সদস্যের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে ভারতীয় সেনারা। হত্যার পর ওই দুজনের মরদেহ বিকৃত করে দেয়া হয় বলে অভিযোগ ভারতের। এ ঘটনার জন্য তারা দায়ী করছে পাকিস্তানকে। এ দিকে, একজন নিহতের মেয়ে এ ঘটনার পর ৫০ জন পাকিস্তানির মাথা দাবি করে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

kashmir border india

টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইনের প্রতিবেদনে জানানো হয়, গতকাল ২০০ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের হেড কনস্টেবল প্রেম সাগর ও ২২ শিখ রেজিমেন্টের নায়েব সুবেদার পরমজিৎ সিংহ নিহত হন।

নিহত প্রেমসাগরে মেয়ে সরোজ বলেন, 'আমার বাবা দেশের জন্য প্রাণ দিয়েছেন, এ জন্য আমি গর্ববোধ করি। কিন্তু তাঁর এমন বর্বরোচিত মৃত্যুর কথা আমি মন থেকে কোনদিনও মুছে ফেলতে পারবো না। বাবার এই আত্মত্যাগের কথা ভুলে যাওয়া উচিৎ নয়। আমরা তার জীবনের বিনিময়ে ৫০ জন পাকিস্তানির মাথা চাই।'

ভারত অভিযোগ করছে, সীমান্ত অতিক্রম করে ভারতে ঢুকে পাকিস্তান সীমান্তরক্ষী বাহিনী (ব্যাট) এই হামলা চালিয়েছে। পাকিস্তান সেনাবাহিনী এই হামলায় সহযোগীতা করেছে। অন্য দিকে, ভারতের এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে পাকিস্তান।

হামলা ও লাশ বিকৃত করার তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে ভারত। দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী অরুণ জেটলি বলেন, 'যুদ্ধের সময়ও এ ধরণের জঘন্য কাজ হয় না। পাকিস্তানকে এই হামলার চরম মূল্য দিতে হবে। সেনাদের এই আত্মদান বিফলে যাবে না।'

ভারতের সরকারি সূত্র জানায়, যেমন খুশি তেমন উপায়ে পাকিস্তানের এই হামলার বদলা নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনীকে।