advertisement
আপনি পড়ছেন

উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ব্যর্থ হয়েছে বলে দাবি করা মার্কিন সেনাবাহিনী এবার তাদের সুর পাল্টেছে। দীর্ঘদিন ধরে উত্তর কোরিয়াকে ‘ব্যর্থ’ দাবি করে আসলেও এবার তারা স্বীকার করে নিয়েছে যে, উত্তর কোরিয়া ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষায় ব্যর্থ হয়নি।

kim jong un north korea leader

গত জুলাই মাসে উত্তর কোরিয়া পরপর তিনটি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়ে নিজেদেরকে সফল দাবি করে ঘোষণা করেছিল, ‘গোটা মার্কিন ভূখণ্ড এখন উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র হামলার আওতায় চলে এসেছে।’ তখন মার্কিন সেনাবাহিনী প্রশান্ত মহাসাগরীয় কমান্ডের প্রধান ডেভ বেনহাম দাবি করেছিলেন, ‘উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা সফল হয়নি। তাদের তিনটি ক্ষেপণাস্ত্রের মধ্যে দু’টি আকাশে বিধ্বস্ত হয়েছে এবং তৃতীয়টি নিক্ষেপের পরপরই বিধ্বস্ত হওয়ায় উত্তর কোরিয়া ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষায় সফল হতে পারেনি।’

কিন্তু আমেরিকার প্রশান্ত মহাসাগরীয় সামরিক কমান্ড এখন বলছে, ‘উত্তর কোরিয়ার তিনটি ক্ষেপণাস্ত্রের মধ্যে প্রথম এবং তৃতীয়টি আকাশে বিধ্বস্ত হয়নি। তিনটির মধ্যে দুটিতে তারা সফল হয়েছে।

মার্কিন সরকারের অব্যাহত হুমকি ও জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞার মুখে পিয়ংইয়ং মার্কিন নিয়ন্ত্রণাধীন গুয়াম দ্বীপে হামলা চালানোর হুমকি দিয়েছিল। এ বিষয়ে মার্কিন সামরিক কমান্ডের দাবি, ‘পিয়ংইয়ংয়ের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা সফল হলেও, তা আমেরিকার প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপ গুয়ামের জন্য এখনো কোন হুমকি সৃষ্টি করতে পারেনি।’

আর কোরীয় উপদ্বীপে যখন দক্ষিণ কোরিয়া এবং আমেরিকা যৌথ সামরিক মহড়া চালায় তখন ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়ে পাল্টা হুমকি তৈরি করে উত্তর কোরিয়া। বর্তমানে কোরীয় উপদ্বীপে আমেরিকা ও দক্ষিণ কোরিয়ায় সেনাবাহিনী যৌথ সামরিক চালানোয় শনিবার পাল্টা হুমকি হিসেবে উত্তর কোরিয়া তিনটি স্বল্প-পাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে বলে খবর বেরিয়েছে।