advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 12 মিনিট আগে

শুক্রবার জুমার নামাজের সময় নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে বর্বরতম হামলা চালিয়েছে উগ্রপন্থী সন্ত্রাসীরা। এতে অন্তত ৪৯ জন নিহত এবং ৪৮ জন গুরুতর আহত হয়েছেন। এর মধ্যে অস্ট্রেলীয় বংশোদ্ভূত ব্রেনটন টারান্ট ভয়াবহ হামলা চালিয়েছে আল নুর মসজিদে। তার হামলায় অন্তত ৪১ জন নিহত হয়েছে।

breton tarrant australia

শুধু তাই নয়, হামলার শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত জঘন্যতম সেই ঘটনার ১৭ মিনিট লাইভ প্রচার করেছে সে। আর এ হামলার কথা আগের দিন সোশ্যাল মিডিয়ায় অনুসারীদের জানিয়ে রেখেছিল সে। তখন থেকেই অনুসারীরা তাকে হামলার জন্য উৎসাহ দিতে থাকে।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম ডেইলি মেইল বলছে, শুক্রবার যখন সে হামলার প্রস্তুতি নিতে শুরু করে তখন থেকেই টারান্টের ফ্যানরা তাকে নানাভাবে উৎসাহিত করেছে, যেমন- ‘হেইল ব্রেনটন টারান্ট’।

bretons followers status

এর পর হামলার খবর যখন সোশ্যল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে এবং টেলিভিশনগুলোতে প্রচার হতে থাকে তখন তার অনুসারীরা হামলা সম্পর্কে নানা ঘটনা বলতে থাকে এবং হত্যাযজ্ঞ চালানোয় টারান্টের প্রশংসা করতে থাকে। অনেকেই তাকে হিরো বানিয়ে ফেলে।

ডেইলি মেইল প্রকাশিত কয়েকটি অনুসারীর পোস্ট দেওয়া হলো-

এক অনুসারী বলছে, ‘হাহা এম….এস গট এফ….জি রেক্ট লল. (বক্তব্যটা অনেকটা এ রকম- হা হা, মুসলমানরা কীভাবে ধ্বংস হয়ে গেল, উচ্চস্বরে হাসি পাচ্ছে)’

অন্যজন বলছে, ‘হলি এফ…., বেশ চমৎকার।’

ডেইলি মেইল বলছে, অন্যান্য ইউজার তথা অনুসারীরা আরো বর্ণনা সহকারে ক্রাইস্টচার্চ শুটারকে সমর্থন করেছে।

একজন হামলাকারীকে হিরো (নায়ক) হিসেবে প্রশংসা করেছে এবং একটু কৌশল করে বলেছে, তারা কামনা করেছিল এ নৃশংসতা ব্রেনটন্ই করতে পারে।

এই ইউজার বলেছে, ‘এই মানুষটির একটি বৃহৎ শরীর, সুন্দর জীবন, স্থায়ী হওয়ার যোগ্যাতা, এবং শান্ত জীবনযাপন করার ক্ষমতা ছিল, কিন্তু তিনি একটি এফ…..জি নায়ক হওয়ার পথ বেছে নিয়েছেন।’

‘স্রষ্টা তোমার ‍ওপর দয়া করুক ব্রেনটন, তুমি আমাদের একজন ছিলে এবং যদি আমার এ রকম নায়কোচিত মৃত্যু হয় তাহলে আমরা এক সঙ্গে ড্রিংক করব,’ বলছে সে।

অন্য এক ইউজার বলছে, তারা এ কারণে ‘দুঃখিত’ যে, টারান্ট মাত্র ৪০ জনের বেশি মুসলিম হত্যা করেছে।

সে আরো বলেছে, ‘দুঃখজনকভাবে সে পর্যাপ্ত সময় তাদের কাছাকাছি পায়নি।’

আরেক অনুসারী মনে করছে যে, প্রত্যেকটি মানুষের উচিত মসজিদে যাওয়া এবং নির্দয়ভাবে সরল লোকদের হত্যা করা।

সে বলেছে, ‘প্রত্যেক মানুষের তার নিজের আত্মোৎস্বর্গ ও দৃঢ় সংকল্প আছে, আমরা অপেক্ষাকৃত ভালো অবস্থানে আছি।’

'আর সে জন্যই আমি তাকে স্যালুট জানাচ্ছি,’ বলে সে।

sheikh mujib 2020