আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 57 মিনিট আগে

নিউজিল্যান্ডে মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় ৫০ জন নিহতের ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই দেশটির অকল্যান্ডে রেলওয়ে স্টেশনে হিজাব পরায় দুই মুসলিম নারীকে হেনস্তা করেছেন এক শ্বেতাঙ্গ। দেশটির ক্রাইস্টচার্চে জুমার নামাজের সময়ে মুসল্লিদের ওপর অতর্কিত গুলি বর্ষণের ঘটনায় পুরো দেশ যখন শোকে কাতর ঠিক তখনই এমন ঘটনা ঘটলো।

hijab women

দেশটির প্রথম শ্রেণির গণমাধ্যম নিউজিল্যান্ড হেরাল্ড জানিয়েছে, 'রোববার অকল্যান্ডের এমটি অ্যালবার্ট রেলস্টেশনে হিজাব পরার কারণে দুই নারীকে আক্রমণাত্বক ভঙ্গিতে গালি দিয়েছে এক শ্বেতাঙ্গ।' জানা গেছে ওই দুই নারী সম্পর্কে বোন।

অকল্যান্ডে হেনস্তার শিকার হওয়া ২১ বছর বয়সী ইকরা জানান, 'বাইরে অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে এটা পরিবারকে বুঝিয়েই বাইরে বের হয়েছি। কিন্তু ট্রেন স্টেশনে এসে এমন ঘটনার মুখোমুখী হতে হবে সেটি কখনো ভাবিনি।'

জানা গেছে, ট্রেনের জন্য অপেক্ষা করার সময় এক ব্যক্তি ওই দুই বোনকে উদ্দেশ্য করে বলেন, 'তোমাদের...(গালি) দেশে ফিরে যাও। আমি তোমাদের ঘৃণা করি। যাও ... দেশে ফিরে যাও।' জানা গেছে, ঘটনার সময় সেখানে কোনো নিরাপত্তা কর্মী ছিল না।

ইকরা বলেন, 'আত্মীয় স্বজন ও বন্ধুরা বলছেন এখন থেকে যদি নিরাপদ থাকতে চাও তাহলে বাইরে হিজাব পরবা না। হিজাব পরলে বিব্রতকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে।' তিনি বলেন, এখন থেকে মুসলিম ভাই বোনদের সতর্ক থাকতে হবে। সব সময় দল বেঁধে বের হতে হবে।'

প্রসঙ্গত, শুক্রবার ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় কমপক্ষে ৫০ জন নিহত ও ৪৮ জন আহত হন। এদিকে মসজিদে ঢুকে হামলার এই ঘটনাকে নিউজিল্যান্ডের জন্য সবচেয়ে অন্ধকার দিন বলে উল্লেখ করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জেসিন্দা আরডান।