advertisement
আপনি দেখছেন

নিউজিল্যান্ডের শান্তিপ্রিয় ক্রাইস্টচার্চ শহরে নামাজরত অবস্থায় মুসল্লিদের ওপর নির্বিচারে গুলি চালিয়েছিল শেতাঙ্গ বন্দুকধারী। স্মরণকালের ইতিহাসে বর্বরোচিত এ হামলায় অন্তত ৫০ জন প্রাণ হারান। বিষয়টি নিয়ে সারাবিশ্বেই বইছে নিন্দার ঝড়। এরমধ্যেই নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাতে নিউজিল্যান্ড সফর করার আগ্রহ জানিয়েছেন মুসলিম বিশ্বের প্রভাবশালী নেতা তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোয়ান।

erdoan turkey president

সোমবার নিউজিল্যান্ড সফররত তুরস্কের ভাইস প্রেসিডেন্ট ফুয়াত উকতাই ও দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভুসওগ্লুর বরাতে বিষয়টি উঠে এসেছে। তুরস্কের গণমাধ্যম বলছে, এরদোয়ান নিহতদের আত্মার মাগফিরাত ও তাদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাতে নিউজিল্যান্ড যাওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। ফলে তুরস্ক ও নিউজিল্যান্ড রাষ্ট্রীয়ভাবে বিষয়টি দেখছে।

তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, নিউজিল্যান্ডের মুসলমানদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন এরদোয়ান। তিনি বলেছেন, 'নিউজিল্যান্ডে বন্দুকধারীর হামলায় নিহত সকল মুসলমান আমাদের ভাই। শীঘ্রই আপনাদের দুঃখ ভাগ করে নিতে আপনাদের শহরে আসছি।'

ক্রাইস্টচার্চের ভয়াবহ এই বন্দুক হামলার নিন্দা জানিয়ে এরদোয়ান বলেন, 'অর্ধশতাধিক মানুষকে মেরে ফেলার এই হামলা বিচ্ছিন্ন কোনো ঘটনা নয়। এটি নিশ্চয়ই সুপরিকল্পিত হামলা। আমরা আন্তর্জাতিকভাবে এই হামলা সঠিক তদন্তের মাধ্যমে উপযুক্ত শাস্তি দাবি করছি।'

গত শুক্রবার জুমার নামাজের প্রাক্কালে নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চ শহরে ভয়াবহ হামলায় ৫০ জন মুসলমান নিহত হওয়ার পর তুরস্ক বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করতে মাঠে নেমেছে। ইতোমধ্যে তুর্কি ভাইস প্রেসিডেন্ট ফুয়াত উকতাই এবং তাদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভুসওগ্লু নিউজিল্যান্ড ঘুরে এসেছেন। এছাড়াও তুর্কি প্রেসিডেন্ট সার্বক্ষণিক বিষয়টি নজর রাখছেন।

sheikh mujib 2020