advertisement
আপনি দেখছেন

এবার নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্দা আরডার্নকে ইসলাম গ্রহণের আহ্বান জানিয়েছেন এক যুবক। সম্প্রতি এক যুবক তার সঙ্গে দেখা করে এ আহ্বান জানান। তিনিও মুসকি হেসে তার জবাব দেন। এ সময় দুইজনের কথোপকথনের ৪৫ সেকেন্ডের একটি ভিডিও অনলাইনে ভাইরাল হয়েছে।

pm of nz and young muslim

পাকিস্তানি গণমাধ্যম দ্য নিউজ বলছে, ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পর গুরুত্বের সঙ্গে এ প্রশ্ন দেখা দিয়েছে যে, জাসিন্দা আরর্ডান ইসলাম গ্রহণ করছেন কি না।

গত ১৫ মার্চ দেশটির ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলায় ৫০ জন মুসল্লির মৃত্যুর পর জাসিন্দা সরকার যেসব উদ্যোগ নিয়েছে গোটা বিশ্ব তার প্রশংসা করছে।

আল নুর ও লিনউড মসজিদে ওই হামলার পর পরই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন তিনি। সেইসঙ্গে নিহতদের শোকসন্তপ্ত পরিবারের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। শুধু তাই নয়, নিহতদের পরিবারের সঙ্গে তিনি যখন দেখা করেন তখন তিনি হিজাব পরে তাদের কাছে যান।

খবরে বলা হয়েছে, ওই যুবক যখন জাসিন্দাকে ইসলাম গ্রহণের আহ্বান জানান তখন তিনি মনোযোগ দিয়ে তার কথা শোনেন।

যুবক বলেন, ‘আমি কেন আপনার কাছে এসেছি সেটা সত্যি কথা বলছি। গত তিন থেকে আমি প্রতিদিন কেঁদেছি। আমি আল্লাহর কাছে দোয়া করছি, যাতে পৃথিবীর অন্যান্য নেতা আপনার মতো গুণাবলীসম্পন্ন হয়। আর আমার আসার আরেকটি বিষয় হলো- আমি আশা করি, একদিন আপনি ইসলাম গ্রহণ করবেন এবং আমার চাওয়া, আমি আপনার সঙ্গে জান্নাতে থাকব।’

নাম-পরিচয় উল্লেখ না করা ওই যুবকের কথার জবাবে নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ইসলাম মানবতার শিক্ষা দেয় এবং আমি মনে করি, সেটা আমার মধ্যে রয়েছে।’

উল্লেখ্য, মসজিদের হামলার অল্প সময়ের মধ্যে তিনি পার্লামেন্টে ভাষণ দেন এবং সেদিন তিনি সালাম দিয়ে নিজের বক্তব্য শুরু করেন। সেইসঙ্গে নিউজিল্যান্ডের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো একজন ইমাম ডেকে পার্লামেন্টে কুরআন তিলওয়াতের ব্যবস্থা করা হয়।

এর পর গত শুক্রবার হামলার এক সপ্তাহের মাথায় ক্রাইস্টচার্চের হাগলে পার্কে (আল নুর মসজিদে উল্টো পাশে।) যে জুমার নামাজের ব্যবস্থা করা হয়, সেখানে মুসলমানদের প্রতি সমর্থন জানাতে হাজার হাজার লোক জড়ো হয়। সেখানে যাওয়া থেকেও বাদ পড়েননি জাসিন্দা আরডার্ন।

দুই মিনিটের নীরবতা শেষে যখন সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন জাসিন্দা তখনও হাদিসের উদ্ধৃতি দেন এবং বলেন, ‘তুমি মুমিনদেরকে তাদের পারস্পরিক সহানুভূতি, বন্ধুত্ব ও দয়ার ক্ষেত্রে একটি দেহের মতো দেখবে। যখন দেহের কোনো একটি অঙ্গ ... শরীরের কোনো একটি অঙ্গ অসুস্থ হলে যেমন দেহের সমস্ত অঙ্গই তার সাথে সাথে অসুস্থ হয়ে পড়ে।’

এই হাদিসের উদ্ধৃতি দিয়ে জাসিন্দা বলেন, আপনাদের সঙ্গে নিউজিল্যান্ডের জনগণও শোকাহত।

এ ছাড়া মুসলমানদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করতে একটি ক্যাম্পেইন গ্রুপের আহ্বানে সাড়া দিয়ে অসংখ্য নারী সেদিন হিজাব পরেন। যেটা করেছেন জাসিন্দা নিজেও। সেইসঙ্গে গত শুক্রবার নিউজিল্যান্ডের সরকারি গণমাধ্যম তথা রেডিও-টেলিভিশন জুমার আজান সরাসরি প্রচার করে।