advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 20 মিনিট আগে

বৈশ্বিক উষ্ণতা বেড়ে যাওয়ায় পৃথিবীর সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ মাউন্ট এভারেস্টের বরফ গলছে। ফলে দীর্ঘদিন ধরে দুর্ঘটনায় নিখোঁজ হওয়া পর্বতারোহীদের মৃতদেহ বেরিয়ে আসছে। বহু বছর ধরে বরফ চাপা থাকা এ সব মরদেহ উদ্ধার করা না করার প্রশ্নে শুরু হয়েছে নতুন বিতর্ক। ফলে বিপাকে পড়েছে নেপালের পর্বতারোহী সংস্থা।

george mallorys body১৯২৪ সালে নিখোঁজ হওয়া জর্জ ম্যালরির মৃতদেহ

দেশটির সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, ১৯২২ সাল থেকে এখন পর্যন্ত ৪ হাজার ৮০০ জন পর্বতারোহী মাউন্ট এভারেস্ট জয় করেছেন। এছাড়া অনেকেই শৃঙ্গ জয় করতে যাবার পথেই মারা গেছেন। সরকারি হিসাব অনুযায়ী এখন পর্যন্ত তিনশোর মতো পর্বতারোহী এভারেস্টে মারা গেছেন। তাদের দুই-তৃতীয়াংশ খুঁজে না পাওয়ায় এভারেস্টেই বরফ সমাধি হয়েছে।

এ বিষয়ে নেপাল মাউন্টেনিয়ারিং অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি আং শেরিং শেরপা বলেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে বৈশ্বিক উষ্ণতা বাড়ছে। এতে হিমালয়ের বরফ ও হিমবাহ দ্রুত গলছে। এ কারণে প্রাণ হারানো পর্বতারোহীদের মৃতদেহগুলো বেরিয়ে আসছে। এভারেস্টে ওঠার পথে এ সব মরদেহ বিভিন্ন জায়গায় দেখা যাচ্ছে।’

তিনি সিএনএনকে জানান, ২০০৮ সালের পর থেকে এখন পর্যন্ত আট জন নিখোঁজ পর্বতারোহীর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তার মধ্যে পঞ্চাশ বছর আগের মরদেহও রয়েছে।’

বিষয়টি উদ্বেগজনক অভিহিত করে নেপাল ন্যাশনাল মাউন্টেন গাইড অ্যাসোসিয়েশনের কর্মকর্তা সবিত কুয়ার বলেন, ‘মরদেহ দেখা গেলে সবাইকে জানানো হচ্ছে। চাইলে সে মরদেহ নামানো হচ্ছে। নাহয় প্রার্থনা করে মৃতদেহগুলো পাথর আর বরফ চাপা দেয়া হচ্ছে। আশঙ্কা করা হচ্ছে, সময়ের সাথে সাথে পরিস্থিতি আরো খারাপের দিকে যেতে পারে।’

sheikh mujib 2020