আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 57 মিনিট আগে

ইসলাম বিদ্বেষের ঘটনায় এবার যুক্তরাষ্ট্রের সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়ায় একটি মসজিদে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। রোববার ভোর ৩টায় দেশটিতে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে। হামলার পর ওই মসজিদ থেকে নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের হামলা সংক্রান্ত একটি চিরকুট উদ্ধার করেছে ক্যালিফোর্নিয়া পুলিশ।

us fight practise 1

স্থানীয় পুলিশ ফক্স নিউজকে জানিয়েছে, হামলার সময় মসজিদের ভেতরে সাত জন মুসল্লি ছিলেন, তাদের কেউ হতাহত হয়নি। তবে আগুনে মসজিদটির বাইরের অংশ কিছুটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

এক বিবৃতিতে পুলিশ জানায়, ইসলামিক সেন্টার অব এসকনডিডো পরিচালিত মসজিদটি সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়ার সানডিয়াগো শহর থেকে ৪৮ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। হামলার ১৫ মিনিটের মধ্যে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস।

তবে এর আগেই মসজিদে থাকা অগ্নিনির্বাপক সরঞ্জামের মাধ্যমে আগুন নিয়ন্ত্রেণে আনেন মুসল্লিরা। পরে মসজিদের পার্কিং লটের কাছ থেকে চিরকুট উদ্ধার করে ক্যালিফোর্নিয়ার পুলিশ।

এ বিষয়ে পুলিশ কর্মকর্তা ক্রিস লিক বলেন, ‘চিরকুটে সম্প্রতি নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে শ্বেতাঙ্গ এক জঙ্গির হামলায় ৫০ জনের নিহতের তথ্য রয়েছে। এছাড়াও আরো কিছু তথ্য রয়েছে। তবে তা তদন্তের খাতিরে বিস্তারিত জানানো হচ্ছে না।’

এ ঘটনাটি হেট ক্রাইম হিসেবে ধরে তদন্তে নেমেছে ক্যালিফোর্নিয়া পুলিশ। এখন পর্যন্ত সন্দেহভাজন হামলাকারীর কোনো তথ্য প্রকাশ করেনি তারা।

মসজিদের মুসল্লি ইউসুফ মিলার বলেন, শনিবার এশার নামাজ শেষে ৭ জন মুসল্লি মসজিদে ঘুমিয়েছিলেন। রোববার ভোরে গোপনে মসজিদটিতে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা।

গত চার বছর আগে এসকনডিডোর এ মসজিদটি নির্মাণ করা হয়। শহরের অনেক মুসল্লি এখানে নামাজ পড়তে আসেন।

প্রসঙ্গত, গত ১৫ মার্চ শুক্রবার জুমার নামাজের সময় আল নুর ও লিনউড মসজিদে নামাজরত মুসল্লিদের ওপর ভয়াবহ ও বর্বর সন্ত্রাসী হামলা চালায় এক মুসলিমবিদ্বেষী অস্ট্রেলীয় বন্দুকধারী। এতে অন্তত ৫০ জন নিহত ও ৪৮ জন আহত হন। এই হত্যাকাণ্ডে নিউজিল্যান্ডসহ গোটা পৃথিবী ধিক্কার জানায়।  এ ঘটনার পর যুক্তরাজ্যের বেশ কয়েকটি মসজিদে ছোটখাট হামলার ঘটনা ঘটে।