advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 12 মিনিট আগে

ইসরায়েলের দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনি জনগণের প্রতিরোধ সংগ্রাম চলবে। কোনো অবস্থাতেই এ লড়াই বন্ধ করা হবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে দেশটির প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস। বুধবার এক বক্তব্যে এ কথা জানান সংগঠনটির রাজনৈতিক শাখার প্রধান ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইসমাইল হানিয়া।

ismai haniya hamas

ইসরায়েলকে সতর্ক করে তিনি বলেন, ফিলিস্তিনি জনগণের ইসরায়েলবিরোধী মনোবল ভাঙতে পারবে- এ দিবাস্বপ্ন যেন ইসরায়েল ভুলেও কখনো না দেখে। কেননা, হামাস সম্প্রতি তাদের সেই শিক্ষা দিয়েছে। এর মাধ্যমে তেল আবিব আমাদের সতর্কবার্তা পেয়েছে।’

ধারণা করা হচ্ছে, এই সতর্কবার্তা দ্বারা দুদিন আগে গাজা উপত্যকা থেকে ইসরায়েলের রাজধানী তেল আবিবে নিক্ষিপ্ত একটি দূরপাল্লার রকেটকে বুঝিয়েছেন ইসমাইল হানিয়া। অতীতে ছোঁড়া রকেটগুলোর চেয়ে এটি অনেক শক্তিশালী ও দূরপাল্লার ছিল, যার আঘাতে সাত ইসরায়েলি আহত হয়।

palestinian anti israel protests at gaza border

এ হামলার জবাবে মঙ্গল ও বুধবার রাতে গাজার খান ইউনুস ও রাফাহ এলাকায় হামাসের লক্ষ্যবস্তুকে টার্গেট করে ব্যাপক বিমান হামলা চালায় ইসরায়েলি বাহিনী। পাল্টা জবাব হিসেবে ইসরায়েলের অভ্যন্তরে রকেট হামলা চালায় ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ সংগঠনগুলো। পরে মিশরের মধ্যস্থতায় যুদ্ধবিরতি হয়।

ইসরায়েলি আগ্রাসনের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিরোধ আন্দোলনে অংশ নেয়ার জন্য গাজার সব পক্ষকে ধন্যবাদ জানান হামাস নেতা ইসমাইল হানিয়া। সেই সঙ্গে তিনি এই প্রতিরোধে সহায়তাকারী সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতাও জানান।

এ সময় ইসমাইল হানিয়া আগামী ৩০ মার্চের ইসরায়েলবিরোধী বিক্ষোভে ব্যাপকভাবে অংশ নেয়ার আহ্বান জানান। গেল বছরের এই দিন মাতৃভূমিতে প্রত্যাবর্তনের অধিকার আদায়ে সীমান্তে ইসরায়েলবিরোধী ব্যাপক বিক্ষোভ করে ফিলিস্তিনিরা। এ আন্দোলনে ইসরায়েলি হামলায় এখন পর্যন্ত অন্তত ২৬০ ফিলিস্তিনি নিহত ও ২৬ হাজার আহত হয়েছেন।

sheikh mujib 2020