advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 32 মিনিট আগে

তুরস্কের স্থানীয় সরকার নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়িপ এরদোয়ানের নেতৃত্বাধীন ক্ষমতাসীন একে পার্টি রাজধানী আঙ্কারায় পরাজিত হয়েছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, তুরস্কের সর্ববৃহৎ শহর ইস্তাম্বুলেও এরদোয়ানের দল পরাজিত হতে যাচ্ছে।

erdogan turki

নির্বাচনের আগে টানা দুই মাস নিরলসভাবে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়েছিলেন এরদোয়ান। কিন্তু রাজধানী আংকারার এই ফলাফল তাকে বিরাট এক ধাক্কাই দিলো বলা চলে।

দীর্ঘ ১৬ বছর ধরে ক্ষমতায় থাকা তুরস্কের এ প্রেসিডেন্ট অনেক আগেই তার ক্ষমতা ও শক্তির প্রভাব বিশ্ববাসীর কাছে পৌঁছে দিতে সক্ষম হয়েছেন। নিজ দেশ তুরস্কের রাজনীতিতেও এককভাবে কর্তৃত্ব দেখিয়ে আসছেন তিনি। তারপরও আঙ্কারায় প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের এ পরাজয় হলো।

প্রচারণার সময় স্থানীয় সরকারের এ নির্বাচনকে তুরস্কের বাঁচা-মরার নির্বাচন হিসেবেও অভিহিত করেছিলেন তিনি। কিন্তু নির্বাচনে ইতোমধ্যেই রাজধানী আঙ্কারা হাতছাড়া হয়েছে। অন্যদিকে দেশটির বৃহওম শহর ইস্তাম্বুলেও ক্ষমতা টিকে থাকাটা দোদুল্যমান অবস্থায় রয়েছে।

তুরস্কের গণমাধ্যম বলছে, ‘রাজধানী আঙ্কারায় বিরোধীদল রিপাবলিকান পিপলস পার্টির (সিএইচপি) প্রার্থী মনসুর ইয়াভাস ভালো ব্যবধানে জয় পেয়েছেন। অন্যদিকে ইস্তাম্বুলেও ভোট গণনায় হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলছে। তবে যে দলই জিতবে তাদের ব্যবধান হবে খুবই কম।’

এদিকে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করছেন, আঙ্কারায় পরাজয় এরদোয়ানের জন্য অশনি সংকেত। এরপর যদি দেশটির বৃহওম শহর ইস্তাম্বুলে এরদোয়ান পরাজিত হয় তবে সেটা হবে তার জন্য ভয়াবহ।

sheikh mujib 2020