আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 52 মিনিট আগে

ভারত থেকে জোরপূর্বক আরও তিনজন রোহিঙ্গা মিয়ানমারে ফেরত পাঠানোর সিদ্ধান্তের প্রতি নিন্দা জানিয়েছে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিশেষজ্ঞরা। তারা আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী নিষিদ্ধ এ ধরনের বাধ্যতামূলক বিতাড়ন বন্ধ করতে ভারত সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

rohingya in india

নির্বাসিত তিন রোহিঙ্গা (বাবা ও তার দুই সন্তান) ২০১৩ সাল থেকে যথাযথ প্রমাণের অভাবে কারাগারে বন্দী ছিলেন। ২০১৯ সালের ৩ জানুয়ারি জোরপূর্বক মিয়ানমারে তাদের পরিবারের পাঁচজন সদস্যকে পাঠিয়ে দেয় ভারত সরকার।

জাতিসংঘের মানবাধিকার বিশেষজ্ঞরা বলেন, ‘রোহিঙ্গাদের জোরপূর্বক মিয়ানমারে ফেরত পাঠানোর বিষয়ে ভারত সরকারের নেয়া সিদ্ধান্তে আমরা উদ্বিগ্ন। সেখানে তারা জাতিগত ও ধর্মীয় কারণে হামলা, প্রতিশোধ ও অন্যান্য মানবতাবিরোধী ঝুঁকির মুখে পড়তে পারে।’

শরণার্থী অবস্থান নির্ধারণে ভারতের আইনি ও প্রশাসনিক প্রক্রিয়ার বিষয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন বিশেষজ্ঞরা।

তারা বলেন, ‘ভারতে রোহিঙ্গাদের অনির্দিষ্টকালের জন্য আটক রাখা নিয়েও আমরা উদ্বিগ্ন। শরণার্থীরা যে দেশে আশ্রয় চেয়েছে, সেখানে এমন আচরণ তাদের প্রতি বৈষম্য, অসহিষ্ণু ও অগ্রহণযোগ্য পরিবেশের ইঙ্গিত দেয়।’ ইউএনবি।