আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 52 মিনিট আগে

গাজা থেকে ইসরায়েলে ছোড়া ক্ষেপণাস্ত্র পাল্টা জবাবের একটি ছোট্ট নমুনা মাত্র, ইসরায়েলের জন্য কঠিন পরিণতি অপেক্ষা করছে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের রাজনৈতিক শাখার প্রধান ইসমাইল হানিয়া।

isma haniyeh hamas

আজ বুধবার তিনি বলেন, গাজাবাসী তেলআবিবে ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার মাধ্যমে ইসরায়েলি দখলদারদের এ বার্তাই দিয়েছে যে, তাদের জন্য কঠিন পরিণতি অপেক্ষা করছে। ফিলিস্তিনিরা প্রয়োজনে কঠোর জবাব দেবে।

প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহে গাজা থেকে নিক্ষিপ্ত একটি ক্ষেপণাস্ত্র ইসরায়েলের তেলআবিবে আঘাত হানে। এতে সাত ইসরায়েলি আহত হয়।

ইসমাইল হানিয়া বলেন, ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ সংগ্রামীরা জনগণের দুঃখ-কষ্টের কথা চিন্তা করে যুদ্ধ থেকে দূরে থাকতে চায়। তবে ইসরায়েল যতক্ষণ যুদ্ধবিরতির শর্তগুলো মেনে চলবে ততক্ষণই কেবল তারা যুদ্ধ থেকে দূরে থাকবে।

এদিকে, গত সোমবার রাতে মিশরীয় একটি প্রতিনিধি দল গাজায় যুদ্ধবিরতি বাস্তবায়ন সংক্রান্ত একটি চিঠি হামাসের কাছে হস্তান্তর করেছে বলে জানিয়েছে ইরানি গণমাধ্যম পার্সটুডে।

একই সঙ্গে ফিলিস্তিনি বন্দিদের বিষয়ে হামাস যেসব দাবি জানিয়েছে ইসরায়েলের কাছে সেগুলোও তুলে ধরা হয়েছে বলে জানিয়েছে প্রতিনিধি দল।

হামাস দাবিতে বলেছে, ইসরায়েলি কারাগারগুলোতে স্থাপিত বিশেষ যন্ত্রগুলো তুলে নিতে হবে এবং বন্দিদের ওপর আরোপিত বিভিন্ন সীমাবদ্ধতা প্রত্যাহার করতে হবে। সেইসঙ্গে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে বন্দিদের সাক্ষাতের সুযোগ দেওয়ার দাবিও জানিয়েছে গাজার শাসক দল হামাস।